আপডেট : ২১ মে, ২০১৮ ২০:৫৪

সহবাসে গর্ভবতী স্কুলছাত্রী, প্রেমিকের কথায় ভ্রূণ নষ্ট! তারপরে...

অনলাইন ডেস্ক
সহবাসে গর্ভবতী স্কুলছাত্রী, প্রেমিকের কথায় ভ্রূণ নষ্ট! তারপরে...

প্রথমে ৪ মাস ধরে প্রেমের অভিনয়। তারপর বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস। গর্ভবতী হওয়ার পরে গর্ভপাতের জন্য নতুন শর্ত। এভাবে দিনের পর দিন যুবকের প্রেমে পড়ে প্রতারিত হল অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী। শেষ পর্যন্ত পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছে ওই ছাত্রীর পরিবার। অভিযুক্ত যুবক অবশ্য পলাতক।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বিষ্ণুপুর থানা এলাকার ভাণ্ডারিয়ায়। জানা গেছে, মহিজুল মল্লিক নামে ওই যুবকের সঙ্গে বেশ কয়েক মাস ধরেই অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের প্রতিশ্রুতি ছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করে মহিজুল। কিন্তু কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে সে বিয়ে করতে রাজি হয়নি। উলটে প্রতিশ্রুতি দেয়, ছাত্রী গর্ভপাত করলে তবেই সে তাকে বিয়ে করবে।

যুবকের চাপে পড়ে সেই শর্তেই রাজি হয়। হাসপাতালের বন্ডে কিশোরীর অভিভাবক হিসেবে স্বাক্ষর করে যুবক। কিন্তু কিশোরীর গর্ভপাতের পরেই ভোল বদলায় সে। বিয়ে করা দূরে থাক, বরং বিয়ের কথা বলায় কিশোরীর পরিবারকেই ওই যুবক পালটা হুমকি দিতে শুরু করে বলে অভিযোগ। এর পরেই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে কিশোরীর পরিবার।

থানায় অভিযোগ দায়ের কথা জানতে পেরেই পালায় মফিজুল। পুলিশ তার দুই ভাই রাহুল এবং মুমতাজুলকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ধর্ষণ, হুমকি দেওয়া ছাড়াও পকসো আইনে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। অভিযোগকারিণী কিশোরীকে নরেন্দ্রপুর হোমে পাঠানো হয়েছে। 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে