আপডেট : ২২ নভেম্বর, ২০১৭ ১৯:৪২

পরকীয়ার কারণে নিজের তিন শিশু সন্তানকে খুন করালেন বাবা!

আন্তর্জাতিক
পরকীয়ার কারণে নিজের তিন শিশু সন্তানকে খুন করালেন বাবা!

ভাইকে দিয়ে নিজের তিন নাবালক সন্তানকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করে খুন করালেন বাবা। নৃশংস এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হরিয়ানার কুরুক্ষেত্রে।

খুনের পর তাদের দেহ ফেলে দেওয়া হয় পাঁচকুলার মোর্নি ফরেস্টে। বাবার নির্দেশেই এই খুন বলে জানিয়েছে অভিযুক্ত চাচা।

১১ বছরের সমীর, ৮ বছরের সীমরণ এবং ৩ বছরের সমরের দেহ চিহ্নিত করা গিয়েছে। কুরুক্ষেত্র জেলার পেহলা ব্লকের সারসা গ্রামের বাসিন্দা এই পরিবার। খুনের ঘটনাটি ঘটে রবিবার। দেহ উদ্ধার হয় মঙ্গলবার। অভিযুক্ত ২৬ বছরের জগদীপ মালিক এবং শিশুদের বাবা সনু মালিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

কাইঠালে একটি স্টুডিও চালায় সনু। কুরুক্ষেত্রের পুলিশ সুপার অভিষেক গর্গ জানিয়েছেন, জগদীপ খুনের ঘটনা স্বীকার করে নিয়েছে।

একইসঙ্গে খুনের ঘটনায় সনু মালিকের যুক্ত থাকারও দাবি করেছে সে।

খুনের উদ্দেশ্য নিয়ে পুলিশ কোনও কথা না জানালেও, সনুর বাবা (নিহতদের দাদা) জিতা মালিক জানিয়েছেন, তাঁর ছেলের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে। নাতীদের খুনের জন্য এই ঘটনাকেই দায়ী করেছেন তিনি।

রবিবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ মাঠে খেলতে যায় শিশুরা। চাচা জগদীপ নিজের গাড়িতে তাদের পিছু নেয়। এমনটাই জানিয়েছেন, পেহোয়ার স্টেশন হাউস অফিসার প্রতীক কুমার। কুরুক্ষেত্রের গীতা জয়ন্তী মহোৎসবে যাওয়ার জন্য তাদের চাপ দেওয়া হয়। কিন্তু সেখানে না নিয়ে গিয়ে গ্রাম থেকে ১১০ কিমি দূরে মোর্নি ফরেস্টে নিয়ে যাওয়া হয়। নিরিবিলি জায়গায় গাড়িটি দাঁড় করায় জগদীপ।

ভাইদের মধ্যে বড় সমীরকে গাড়ি থেকে নামতে বলে। গাড়িতে সেই সময় বাকি দুই ভাইকে রেখে মিউজিক সিস্টেমের আওয়াজও বাড়িয়ে দেয় জগদীপ। বড় ভাই সমীরকে প্রায় ৫০ ফুট দূরে জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে গুলি করা হয়। ফিরে এসে সিমরনকে একইভাবে খুন করে জগদীপ। এরপর সমরকে আড়াই কিলোমিটার দূরে নিয়ে গিয়ে খুন করে জগদীপ।

রবিবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ শিশুরা ফিরে না আসায় খোঁজ শুরু করেন শিশুদের মা। গ্রামবাসীদেরও সতর্ক করা হয়। খুঁজে না পাওয়ায় জানানো হয় পুলিশে। সন্ধ্যা নাগাদ জগদীপ ফিরে আসে। আর শিশুদের বাবা সনু ফিরে আসে রাত সাড়ে আটটা নাগাদ। ভাইপোদের খুঁজে না পাওয়ায় পুলিশকে জগদীপ হুমকিও দেয় বলে অভিযোগ।

কিন্তু কোনও একটি সূত্র ধরে সোমবার রাতে বাড়িতে হানা দিয়ে দুই ভাইকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের সময় ভেঙে পড়ে জগদীপ এবং খুনের ঘটনা স্বীকার করে নেয় সে। দুজনের বিরদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে