আপডেট : ২২ আগস্ট, ২০১৭ ১০:০৮

পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখলেন ট্রাম্প-মেলানিয়া

আন্তর্জাতিক
পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখলেন ট্রাম্প-মেলানিয়া

পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণের দৌলতে গতকাল সোমবার ভরদুপুরেই রাত নেমে এসেছিল যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম থেকে পূর্ব উপকূলের সুবিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে। ৯৯ বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে এমন সূর্যগ্রহণ দেখা গিয়েছিল। এরপরে আবারও এমন সূর্যগ্রহণ দেখতে চাইলে মার্কিনিদের ২০৯০ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। লাখো মার্কিনির সঙ্গে এমন বিরল মুহূর্তের সাক্ষী হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ফার্স্টলেডি মেলেনিয়া ট্রাম্প। ওয়াশিংটনেই তারা একসঙ্গে পূর্নগ্রাস সূর্যগ্রহণ উপভোগ করেন বলে জানায় বিবিসি।

পূর্ণ সূর্যগ্রহণ দেখতে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন জায়গায় হাজার-হাজার মানুষ ঘরের বাইরে আসে। ওয়াশিংটনে ট্রাম্প ও মেলেনিয়ার সঙ্গে সূর্যগ্রহণ দেখেছেন তাদের ছেলে ব্যারন ট্রাম্প।  

গত ৫০০ বছরের মধ্যে আটলান্টিক মহাসাগরের দুই পাশে মোট আটটি সূর্যগ্রহণ হয়েছে। ২০৯০ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ ধরনের সূর্যগ্রহণ আর হবে না।

সূর্যগ্রহণ খুব সহসা আসে না, এর কারণ জানিয়ে বিজ্ঞানীরা বলেন, ‘পৃথিবী এবং সূর্যের মাঝখানে চাঁদ পরিভ্রমণ করে। কিন্তু পৃথিবী এবং সূর্যের তুলনায় চাঁদের কক্ষপথ কিছুটা ঝুঁকে থাকায় চাঁদ হয়তো খুব উপরে নয়তো খুব নিচে অবস্থান করে। সেজন্য প্রতি ১৮মাসে চাঁদ একবার পৃথিবী ও সূর্যের সমান্তরালে আসে। তখন সূর্যকে ঢেকে দিয়ে পৃথিবীতে চাঁদের ছায়া পড়ে।’

চাঁদের তুলনায় সূর্য ৪০০ গুন বেশি বড়। কিন্তু সূর্যের তুলনায় চাঁদ পৃথিবীর কাছাকাছি অবস্থান করে। সেজন্য পৃথিবী থেকে দেখতে চাঁদ ও সূর্যকে অনেকটা একই রকম মনে হয়। চাঁদ সবসময় একই কক্ষপথে সুচারুভাবে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করে না। ফলে সূর্যগ্রহণ সবসময় দেখতে একই রকম হয় না। প্রতিটি সূর্যগ্রহণ সবসময় পৃথিবীর যে কোন জায়গা এক থেকে দেখা যায় না।

প্রতি ৩৭৫ বছর পর সূর্যগ্রহণ মোটামুটি পৃথিবীর সব জায়গা থেকে দেখা যায়। প্রতি ১৮ মাসে একবার পৃথিবীর কোথাও না কোথাও সূর্যগ্রহণ দেখা যায়।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে