আপডেট : ২০ আগস্ট, ২০১৭ ১৫:৩১

পর্নোগ্রাফি আসক্তি বেশি সৌদি আরবের নাগরিকদের

অনলাইন ডেস্ক
পর্নোগ্রাফি আসক্তি বেশি সৌদি আরবের নাগরিকদের

আরব বিশ্বের দেশগুলোর মধ্যে পর্নোগ্রাফি আসক্তি বেশি সৌদি আরবের নাগরিকদের। সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকলেও এনক্রিপশন কৌশল ব্যবহার করে পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইটে অবাধ বিচরণ আছে তাদের।

আরব বিশ্বের দেশগুলোর মধ্যে মিসরের জনগণ অবাধে পর্ন সাইটে প্রবেশ করতে পারে। যদিও দেশটির আগের সরকার পর্ন সাইট বন্ধের চেষ্টা করেছিল; তবে শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয় সেই প্রচেষ্টা।

আরবি ভাষাভাষি দেশগুলোর মধ্যে পর্নোগ্রাফির প্রধান বাজার মিসর। ‘মাদা মাসর’র মতো দেশটির স্বতন্ত্র এবং রাজনৈতিক বিভিন্ন ওয়েবসাইট ব্লক থাকলেও পর্ন সাইট উন্মুক্ত।

ইউনিভার্সিটি অব ভ্যানকুভারের মিসর বিশেষজ্ঞ ও যোগাযোগবিষয়ক অধ্যাপক আদেল ইস্কান্দার বলেন, কামনাতৃপ্তি দিতে জনগণকে ভার্চুয়াল অভিজ্ঞতা নেয়ার অনুমতি দেয়াটা মিসরের রাজনৈতিক কৌশলের অংশ।

ওয়েব ট্র্যাফিক বিশ্লেষণের পর বৈশ্বিক র‌্যাংকিং প্রস্তুতকারী সংস্থা অ্যালেক্সা’র তথ্য বলছে, মিসরে শীর্ষ ৫০টি পর্ন সাইটের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ব্রাউজ করা হয় চারটি বৃহৎ পর্ন ওয়েবসাইটে।

তবে শুধুমাত্র মিসরই এই কাতারে একা নয়। একই সত্য দেখা যায় ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, সিরিয়া, লেবানন, তিউনিশিয়া ও মরক্কোর ক্ষেত্রেও।

আদেল ইস্কান্দার বলেন, পর্নোগ্রাফির বড় বাজার সৌদি আরবও। তবে এই র‌্যাংকিংয়ের সত্যতা যাচাই করা কঠিন। কেননা সৌদিরা এনক্রিপ্টেড কৌশল অবলম্বন করে পর্ন সাইটগুলোতে প্রবেশ করে।

সূত্র : ফ্রান্স ২৪।

উপরে