আপডেট : ১৮ আগস্ট, ২০১৭ ১৯:০০

খিদের জ্বালা সইতে না পেরে বানভাসীদের গুদাম লুট

অনলাইন ডেস্ক
খিদের জ্বালা সইতে না পেরে বানভাসীদের গুদাম লুট

কুলিক নদীর জলে গত ৩ দিন ধরে ইটাহারের বিস্তীর্ণ এলাকা জলমগ্ন হয়ে রয়েছে। বাসিন্দাদের অভিযোগ, গত ৩ দিনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাঁরা কোনও ত্রান পাননি।

ত্রান না পেয়ে ইটাহার ব্লকের জলমগ্ন এলাকার বাসিন্দারা ইটাহার কৃষক বাজারের গুদামের তালা ভেঙ্গে চাল লুট করে। ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত থাকলেও উত্তেজিত জনতার ক্ষোভ বিচার করে দর্শকের ভূমিকা পালন করে তারা। আজ শুক্রবার (১৮ আগস্ট) দুপুর ১২টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে।

এর পাশাপাশি ত্রান না পেয়ে কিছু মানুষ ইটাহারের বি ডি ও অফিসেও ভাঙচুর চালিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

কুলিক নদীর জলে গত ৩ দিন ধরে ইটাহারের বিস্তীর্ণ এলাকা জলমগ্ন হয়ে রয়েছে। বাসিন্দাদের অভিযোগ, গত ৩ দিনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাঁরা কোনও ত্রান পাননি। বৃহস্পতিবার রাতে ইটাহারে ত্রিপল বিলিকে কেন্দ্র করে পুলিশ বন্যাদুর্গত মানুষের উপড় লাঠি ও রবার বুলেট চালায়। ওই ঘটনার পর থেকেই মানুষের মধ্যে ক্ষোভ বাড়তে থাকে।

এর মধ্যেই খবর রটে যায় ইটাহারের কৃষক বাজারের গুদামে বিপুল পরিমাণে চাল মজুত রয়েছে। এদিন দুপুর নাগাদ প্রায় হাজারখানেক মানুষ ওই কৃষক বাজারে খাবার চাইতে যায়। কিন্তু, সেখানকার কর্তব্যরত কর্মীরা তা দিতে রাজি না হওয়ায় মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে গুদামে হামলা চালায়। গুদামের শাটারের তালা ভেঙ্গে চালের বস্তা লুঠ করে নিয়ে যান তাঁরা। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার র‍্যাফ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছলেও মানুষের ক্ষোভের মুখে পড়ে ঘটনাস্থল থেকে দূরে দাঁড়িয়ে কার্যত দর্শকের ভূমিকা পালন করে।

গুদাম লুটকারীরা জানিয়েছেন, গুদামে মজুত থাকা সত্ত্বেও তাদের ত্রান দেওয়া হচ্ছে না। এ নিয়ে তারা গত কয়েকদিন ধরে প্রশাসনের কাছে অনেকবার আবেদন করেছেন। বাধ্য হয়েই তাই এদিন গুদাম লুট করেছেন তাঁরা।

জেলা প্রশাসনসূত্রে জানা গিয়েছে, ওই গুদামটি খাদ্য সরবরাহ দফতরের। তবে ঘটনা নিয়ে তারা কোনও মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে