আপডেট : ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬ ০৮:১৬

অন্তর্বাস নিয়ে জঙ্গি প্রেমিকের কাছে যাচ্ছিল তরুণী!

অনলাইন ডেস্ক
অন্তর্বাস নিয়ে জঙ্গি প্রেমিকের কাছে যাচ্ছিল তরুণী!

আইএস'এ যোগ দিতে ঘর ছেড়ে সিরিয়ার উদ্দেশ্যে যাত্র শুরু করেছিলো ২১ বছর বয়সের রাশিয়ান তরুণী ভার্ভারা কারালোভা। লক্ষ্য ছিল রাশিয়ায় ২০১৮ ফুটবল বিশ্বকাপে নাশকতা ঘটনো। কিন্তু সঙ্গে বন্দুক, বোমা, বিস্ফোরক কিছুই নেয়নি সে। তার সুটকেসে ছিল অগুন্তি অন্তর্বাস। অবিশ্বাস্য মনে হলেও বিষয়টি সত্যি। তবে সিরিয়া যাত্রা হয়নি তার। তুরস্ক সীমান্তে সে ধরা পড়েছে পুলিশের হাতে।

ভার্ভারা কারালোভা জানিয়েছে, এক সন্ত্রাসবাদির সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। তাকে খুশি করতেই নিজের জন্য একগাদা অন্তর্বাস কিনেছিল সে।

পুলিশের জেরায় কারালোভা জানিয়েছে, ইন্টারনেটে চ্যাটিংয়ের সূত্রে তার আলাপ হয়েছিল আই এস জঙ্গি আইরাত সামাতোভের সঙ্গে। ৩৬ বছর বয়সী এই জঙ্গির সঙ্গে তার পরিচয় দ্রুত প্রেমের দিকে গড়ায়। আইরাত তাকে এতোটাই প্রভাবিত করে যে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের মতো হিজাব পরতেও শুরু করে দেয় কারালোভা। পরে আত্মঘাতী জঙ্গি অথবা ‘‌স্নাইপার শ্যুটার’‌ (‌দূরপাল্লার বন্দুক চালায় যারা)‌ হওয়ার ইচ্ছা দানা বাঁধে কারালোভার মনে।

আইরাত ছাড়াও আরও দুই জঙ্গির সঙ্গে তার যোগাযোগ হয়েছে। সিরিয়া আসার জন্য আইরাত তাকে টাকা পাঠিয়েছিল। সেই উদ্দেশ্য নিয়েই সিরিয়া যাচ্ছিল সে। যদিও ভার্ভারার স্বীকারোক্তি মানতে রাজি নয় তার পরিবার। তার অভিভাবকদের দাবি, ভার্ভারা মস্কো বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের মেধাবী ছাত্রী। সে না জেনেই এই জঙ্গির সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে। ধরা পড়ার পরেও শাস্তি নিয়ে চিন্তা ভাবনা নেই কারালোভার মধ্যে। উল্টে সে বলছে, ‘‌যা খুশি শাস্তি হোক, সেটার পরোয়া করি না। আমি শুধু আইরাতের সঙ্গে একটু কথা বলতে চাই। ’‌

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে