আপডেট : ২৬ মার্চ, ২০১৬ ১৬:১৫

সদ্যজাত শিশুকে বাথরুমের কমোডে ফ্লাশ করলেন মা!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
সদ্যজাত শিশুকে বাথরুমের কমোডে ফ্লাশ করলেন মা!

শিশুর জন্য সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয় তার মায়ের কোল। পৃথিবীর যে কোনও বিপদ থেকে তাকে আগলে রাখে তার মা। নিজের সন্তানকে সুস্থ ভাবে বাঁচিয়ে রাখতে যেকোন ঝুঁকি নিতে প্রস্তুত থাকেন মা। কিন্তু যদি এর উল্টোটা হয়? মা-ই যদি হয় কোনও শিশুর সবচেয়ে বড় শত্রু? বাঁচানোর বদলে শিশুকে মেরে ফেলার আপ্রাণ চেষ্টা করে তার মা? হ্যাঁ, বাস্তবে এমনই নিষ্ঠুরতার পরিচয় দিয়েছেন চিনের ইয়ুক্সি শহরের এক মা।

গত ২০ মার্চ শহরের এক হাসপাতালের মহিলা শৌচাগার থেকে হঠাতই কান্নার আওয়াজ ভেসে আসতে শোনেন হাসপাতালের কর্মীরা। অনেক খোঁজাখুজির পর পাওয়া যায় কান্নার উৎস। শৌচাগারের কোমোড। জন্মের পর ওই শিশুকে মেরে ফেলতে তার মা তাকে কোমোডে ফেলে ফ্লাশ করে দেয়।

কিন্তু 'রাখে আল্লাহ মারে কে'। তাই ফ্লাশ করার পর পাইপের মধ্যেই আটকে যায় শিশুটি। কিছুক্ষণ পর তার কান্না হাসপাতাল কর্মীদের কানে পৌঁছায়।

হাসপাতাল কর্মীরা কান্নার শব্দ শুনলেও বুঝতে পারছিলেন না শব্দ আসছে কোত্থেকে। এক পর্যায়ে তারা আবিষ্কার করেন টয়লেটের পাইপে রক্তসহ আটকা পরে আছে নবজাতক।

দমকল কর্মীদের খবর দেয়া হয় এই দুঃসাধ্য কাজটি করার জন্য। তাদেরকে বলা হয় শিশুটিকে আহত না করে তাকে সরু পাইপের মধ্যে থেকে বের করার জন্য। তিন ঘণ্টা মরণপণ লড়াই করার পর তারা অসাধ্য সাধন করেছে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে শিশুটি এখন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে সুস্থ অবস্থায় আছে।পুলিশ শিশুটির মাকে খুঁজছে। 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে