আপডেট : ২৬ মার্চ, ২০১৬ ১২:৩০

মুসলিম বিদ্বেষী সু চি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মুসলিম বিদ্বেষী সু চি!

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিম নিধনযজ্ঞে শান্তিতে নোবেলজয়ী গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চি কোন ধরনের কথা বলেননি। তার সেই সময়ের কৃতকর্মগুলো নিয়ে ব্রিটিশ সাংবাদিক পিটার পোফাম বই লিখেছেন।

বইয়ে পিটার দেখিয়েছেন সু চি মুখে গণতন্ত্রের কথা বললেও তিনি মূলত মিয়ানমারের সংখ্যাগুরু সম্প্রদায়ের একজন, তিনিও অন্তরে মুসলিম বিদ্বেষ পোষণ করেন। তিনি ক্ষমতা যাওয়ার জন্য অনেক কিছুই করেছেন কিন্তু তার দেশের জান্তা সরকারের সময় বৌদ্ধরামুসলিম নিধনযজ্ঞ চালালেও
তিনি তাদের বিরুদ্ধে একটি মাত্র শব্দও উল্লেখ করেননি।

সম্প্রতি ব্রিটিশ সাংবাদিক পিটার পোফাম “The Lady and the Generals: Aung San Suu Kyi and Burma’s Struggle for Freedom” শীর্ষক বইয়ে সু চি’র নানা দিকের সাথে এই সাম্প্রদায়িক ভেদবুদ্ধিজাত সংস্কারটিও তুলে ধরেছেন।

বইটিতে সু চির মুসলিম বিদ্বেষ তুলে ধরে একটি স্থানে বলা হয়েছে, বিবিসি টুডে প্রোগ্রামের উপস্থাপিকা মিশাল হুসেইনের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে হঠাৎ করে ক্ষেপে যান সু চি।এতোটাই ধৈর্য্য হারিয়ে ফেলেন যে অফএয়ারে বলে ফেলেন, ‘আমাকে কেউ বলেনি যে একজন মুসলিম আমার সাক্ষাৎকার নেবে!’

মিয়ানমারের ন্যাশনাল লিগ অব ডেমোক্রেসির সভাপতি সু চি বছর দুয়েক আগে সরকারি মদদে রোহিঙ্গা মুসলিম নিধনযজ্ঞ এবং নিজ দেশের মুসলিম বিদ্বেষী মনোভাবের সমালোচনার না করার ব্যাপারে বারবার প্রশ্ন করেন ওই উপস্থাপিকা। কিন্তু বরাবরই তিনি এর নিন্দা জানাতে অস্বীকার করেন।

প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় নানা কারণে আরো অনেক অনেক বৌদ্ধ দেশ ছেড়ে চলে গেছেন। একটি স্বৈরতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থায় আমাদের নিষ্পেষিত হওয়ার এটি একটি ফল।’ এই বলে দায় সারা পর অফএয়ারে তিনি ওই সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করেন।

উল্লেখ্য, মিশাল ‍হুসেইন রেডিও ৪ এর প্রথম কোনো মুসলিম উপস্থাপক। তিনি সু চির সাক্ষাৎকারটি নিয়েছিলেন ২০১৩ সালে। এই সময়টাতে মিয়ানমারে মুসলিম বিদ্বেষ তুঙ্গে ওঠে এবং বহু হতাহতের ঘটনা ঘটে। কিন্তু এ বিষয়ে সু চির নীরবতা আন্তর্জাতিক মহলকে স্তম্ভিত করেছিল।

এছাড়া ২০১৫ সালের নির্বাচনে সু চির দল যে বিপুল ভোটে বিজয়ী হলো তাতে দলের পক্ষ থেকে একজনও মুসলিম প্রার্থী ছিলেন না আর সু চির সরকারে কোনো মুসলিম মন্ত্রীও থাকছে না। অথচ সংখ্যালঘু মুসলিমদের একচেটিয়া ভোট পেয়েছেন তিনি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে