আপডেট : ১৭ মার্চ, ২০১৬ ১৫:২২

ধর্ষণে বাধা দেয়ায় ভাইয়ের হাতে খুন হলেন বোন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ধর্ষণে বাধা দেয়ায় ভাইয়ের হাতে খুন হলেন বোন

মানুষের বিকৃত রুপের আরেকটি উদাহরন নিয়ে হাজির হল অনীল সিংহ নামের এক যুবক। অনীল সিংহ তার মাসতুতো বোনকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে এবং বাধা দেয়ায় তাকে গলাটিপে হত্যা করে। গত সোমবার ভারতের উত্তর প্রদেশের গ্রেটার নয়ডার একটি গ্রামে ঘটে এই ঘটনাটি।

গত রবিবার ওই কিশোরীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিল অনিল। সে রাতে ওই বাড়িতেই থেকে যায় সে। সোমবার ওই কিশোরী যখন স্কুল থেকে বাড়ি ফেরে, তখন বাড়িতে আর কেউ ছিল না। সেই সুযোগে মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করে অনিল। কিন্তু তাতে বাধা দেয় কিশোরী। রাগের মাথায় মেয়েটিকে প্রথমে সিঁড়ি থেকে ফেলে দেয় সে। এরপর গলা টিপে তাকে হত্যা করে।

প্রথমে ওই বাড়িরই একটা ঘরে মেয়েটির দেহ লুকিয়ে রেখেছিল অনিল। পরে তার বাড়ির লোকজন যখন থানায় মিসিং ডায়েরি করতে যান, সেই সময় দেহটি বাড়ি থেকে বার করে পাশের একটা রাস্তায় ফেলে আসে সে। পুলিশ জানিয়েছে, বছর তেইশের অনিল এর আগেও ওই মেয়েটির শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছিল। তা হলে নিহত কিশোরীর বাড়ির লোক কেন অনিলকে তাঁদের বাড়িতে থাকতে দিলেন, সে প্রশ্ন উঠছে।

মেয়েটির মা পুলিশকে জানিয়েছেন, তাঁরা ভেবেছিলেন অনিল হয়তো শুধরে গিয়েছে। তিনি আরও জানিয়েছেন, সকাল বেলা উঠে কাজে বেরিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। বাড়ি ফিরে যখন দেখেন মেয়ে নেই, তিনি অনিলকে প্রশ্ন করেছিলেন। অনিল তাকে জানায় সে কারও জন্মদিনের পার্টিতে গিয়েছে। রাত পর্যন্ত সে না ফেরায়  থানায় অভিযোগ জানাতে যান তারা। সেখান থেকে ফেরার পথে রাস্তায় মেয়ের দেহ দেখতে পান তাঁরা।

পুলিশের বক্তব্য, জেরায় নিজের দোষ কবুল করেছে অনিল। মেয়েটি তার পরিবারকে সব জানিয়ে দিতে পারে বলে ভয় ছিল তার। সেই জন্য তুতো বোনকে মেরেই ফেলে সে।

উপরে