আপডেট : ১৫ মার্চ, ২০১৬ ২১:৩৫

দুই ছাত্রকে উলঙ্গ করে শিক্ষিকার শাস্তি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
দুই ছাত্রকে উলঙ্গ করে শিক্ষিকার শাস্তি!

পড়া ঠিকমতো না পারায় দুই ছাত্রকে শ্রেণির বাইরে উলঙ্গ করে দাঁড় করিয়ে শাস্তি দিয়েছেন শিক্ষিকা! মুম্বাইয়ের একটি কোচিং সেন্টারে ৮/৯ বছরের দুই ছাত্রকে এ শাস্তি দেন শিক্ষিকা সারোজ নাইর। শিক্ষিকার দাবি, শাস্তির ব্যাপারে ছাত্রদের বাবা-মার অনুমতি ছিলো। এ ঘটনায় তদন্ত করছে মুম্বাই পুলিশ।

ভারতের মুম্বাইয়ের মালওয়ানিতে শুক্রবার ওই শিক্ষিকা আট ও নয় বছরের দুই ছাত্রকে এমন লজ্জাজনক শাস্তি দেন। বাড়ির কাজ না করায় দুই ছাত্রকে উলঙ্গ করে ক্লাসের বাইরে আধা ঘণ্টা দাঁড় করিয়ে রেখেছিলেন। উলঙ্গ দাঁড় করিয়ে রাখার একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, দুই বালককে উলঙ্গ করে ক্লাসের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছে। তারা কাঁদছে ও লজ্জায় দেয়ালের সঙ্গে মুখ মিশিয়ে রেখেছে।

মালওয়ানি পুলিশ জানিয়েছে, কোচিং সেন্টারের মালিক গনেশ নাইরের শ্যালিকা সারোজ নাইর এ শাস্তি দিয়েছেন। এ দুজনের বিরুদ্ধে কোনো মামলা করতে রাজি নয়, ওই ছাত্রদের বাবা-মাও। ওই শিক্ষিকাকে এখনো গ্রেফতার করা হয়নি। ঘটনার পর শনিবার থেকে কোচিং সেন্টারটি বন্ধ রয়েছে। এঘটনার তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

‘লাইফ ইজ লাইট’ এনজিওর এক কর্মী এ ঘটনার ভিডিও করেছেন। এনজিওর পরিচালক শাকিল পাটানি বলেন, ‘আমরা কোচিং সেন্টারটিতে গিয়ে দেখি, বাচ্চা দুটি কাঁদছে। তারা অসুস্থ হয়ে গেছে। কোচিং সেন্টারের বাইরে কয়েকজন মানুষ ভিড় করে আছে। তারা দ্রুত বাচ্চা দুটিকে লজ্জার হাত থেকে মুক্তি দেওয়ার দাবি জানাচ্ছে।’

কোচিং সেন্টারের মালিক বলেন, ‘ছাত্র দুটি পড়ালেখায় খুবই দুর্বল। তারা পড়াশোনায় ফাঁকি দেয়। ঠিকমতো বাড়ির কাজ করে না। তাই ছাত্রদের বাবা-মা শান্তির অনুমতি দিয়েছে।’

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে