আপডেট : ৭ মার্চ, ২০১৬ ১৭:৩৭

পাকিস্তানের আদালত প্রাঙ্গণে আত্মঘাতী বোমা হামলা, নিহত ১০

বিডিটাইমস ডেস্ক
পাকিস্তানের আদালত প্রাঙ্গণে আত্মঘাতী বোমা হামলা,  নিহত ১০

পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে একটি আদালত প্রাঙ্গণে এক আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছেন।

সোমবার পশতু ভাষাভাষী মোহমান্দ নৃগোষ্ঠী অধ্যুষিত এলাকার শবেকদর টাউনে হামলাটি চালানো হয়। টাউনটি পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদের ১৫০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে। 

এ হামলাকে মুমতাজ কাদরির ফাঁসি কার্যকরের প্রতিক্রিয়ায় চালানো প্রতিশোধমূলক হামলা বলে দাবি করেছে পাকিস্তান তালেবানের একটি অংশ।

পাকিস্তানের কঠোর ধর্মাবমাননা (ব্লাসফেমি) আইনের সংস্কারের আহ্বান জানানোয় পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের গভর্নর সালমান তাসিরকে ২০১১ সালে রাজধানী ইসলামাবাদে গুলি করে হত্যা করেন মুমতাজ।

ওই হত্যাকাণ্ডের বিচারে তাসিরের দেহরক্ষী মুমতাজের মৃত্যুদণ্ড হয়। ২৯ ফেব্রুয়ারি ইসলামাবাদের কাছে আদিয়ালা কারাগারে মুমতাজের ফাঁসি কার্যকর করা হয়।

পাকিস্তান তালেবানের উপদল জামাত উর আহরার এক ইমেইলে আদালত প্রাঙ্গণে বোমা হামলায় দায় স্বীকার করেছে।

গোষ্ঠীটির মুখপাত্র এহসানুল্লাহ এহসান ইমেইলে দেওয়া বিবৃতিতে বলেছেন, “বিশেষভাবে মুমতাজ কাদরির ফাঁসির প্রতিশোধ হিসেবে হামলাটি চালানো হয়েছে।” 

জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা সোহায়িল খালিদ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, নিহত অন্তত ১০ জনের মধ্যে দুই পুলিশ সদস্য, চার নারী ও দুই শিশু রয়েছেন এবং বিস্ফোরণে আরো প্রায় ৩০ জন আহত হয়েছেন।  

অপর পুলিশ কর্মকর্তা সায়িদ ওয়াজির জানান, হামলাকারী শবেকদর টাউনের আদালত ভবন লক্ষ্য করে বিস্ফোরণটি ঘটিয়েছে। 

“আত্মঘাতী আদালত প্রাঙ্গণে প্রবেশের চেষ্টা করছিল, পুলিশ তাকে থামানোর সঙ্গে সঙ্গেই সে বিস্ফোরণ ঘটায়,” বলেন ওয়াজির।

ঘটনাস্থলে বড় ধরনের বিস্ফোরণের বর্ণনা দিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। 

ঘটনাস্থলে উপস্থিত স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা গওহর খান বলেন, “আমরা এক আইনজীবীর সঙ্গে বসেছিলাম, তখনই দায়রা জজ আদালত প্রাঙ্গণে ব্যাপক ওই বিস্ফোরণটি ঘটে।

“বিস্ফোরণের পরপরই সেনাবাহিনী ও অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলো ঘটনাস্থল ঘিরে ফেলে। আহতদের নিকটবর্তী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।”

পাকিস্তানি টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর খবরে দেখানো ফুটেজে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও অন্তত দুইটি গাড়ির ধ্বংসাবশেষ দেখা গেছে।  

সাম্প্রতিক দিনগুলোতে মোহমান্দ নৃগোষ্ঠী অধ্যুষিত এলাকার বেশ কয়েকটি হামলার ঘটনা ঘটেছে।

১ মার্চ রাস্তায় পুতে রাখা দূরনিয়ন্ত্রিত বোমার বিস্ফোরণে গাড়িতে থাকা পেশোয়ার যুক্তরাষ্ট্র কন্স্যুলেটের দুই পাকিস্তানি কর্মী নিহত হন।

 

উপরে