আপডেট : ১ মার্চ, ২০১৬ ২৩:১৫

বিদায় মঞ্চে সাবেকের কাছে নতুন পুলিশ কমিশনারের বিরুদ্ধে নালিশ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বিদায় মঞ্চে সাবেকের কাছে নতুন পুলিশ কমিশনারের বিরুদ্ধে নালিশ!

কয়েকমিনিট পরেই দায়িত্ব নিতে চলেছেন দিল্লির নতুন পুলিশ কমিশনার। শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি তুঙ্গে। অপেক্ষা করছেন সাংবাদিকেরা। হঠাৎ ছুটে এলেন এক মহিলা। কোলে দু’মাসের শিশু। চিৎকার করে অভিযোগ জানালেন, তাঁকে এবং তাঁর শিশুসন্তানকে খুন করার চেষ্টা করছেন তাঁর শাশুড়ি।

প্রাক্তন কমিশনার বি এস বস্‌সীর কাছ থেকে মঙ্গলবার দায়িত্ব বুঝে নিলেন ১৯৭৯ ব্যাচের আইপিএস আধিকারিক অলোককুমার বর্মা।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বস্‌সীর বিদায়ী অনুষ্ঠানের কথা জানতেন না আরিফা নামে ওই বাংলাদেশি মহিলা।

সংবাদমাধ্যমের সামনে আরিফা দাবি করেন, দিল্লির জামিয়ানগর এলাকার পুলিশ আধিকারিকেরা ঘুষ নিয়ে তাঁর শাশুড়িকে নির্দোষ প্রতিপন্ন করছেন। পরে পুলিশ কমিশনারের কার্যালয় সংলগ্ন লবি থেকে আরিফাকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

দুপুর ১২টা ১৫ মিনিট নাগাদ সাংবাদিক বৈঠক শুরু করেন বসসী এবং অলোককুমার। নতুন পুলিশ কমিশনার এর আগে তিহাড় সংশোধনাগারের ডিরেক্টর জেনারেল পদে ছিলেন। আগামী ১৭ মাস তিনি এই পদে দায়িত্ব পালন করবেন।  

বিদায়ী অনুষ্ঠানে বস্‌সী বলেন, ‘‘অনেকের ধারণা, পুলিশবাহিনীর উপর রাজনীতিকেরা প্রভাব খাটান। দিল্লি পুলিশ কিন্তু পুরোপুরি স্বশাসিত একটি সংস্থা।’’ প্রসঙ্গত, দিল্লি পুলিশ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আওতায় এবং বসসী দিল্লির আম আদমি পার্টি’র সরকারের সঙ্গে সম্প্রতি একাধিকবার বিবাদে জড়িয়ে পড়েছেন ।

সেই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘কেউ যদি ভাবেন, দিল্লি পুলিশ বিবাদ চায়, তা হলে তিনি ভুল ভাবছেন। আমরা সকলকে সঙ্গে নিয়েই চলার পক্ষপাতী।’’ 

বস্‌সীর বিরুদ্ধে করা একটি আবেদন মঙ্গলবার খারিজ করে দিয়েছে দিল্লি হাইকোর্ট। সতীশ পাণ্ডে নামে এক আইনজীবীর অভিযোগ, জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা প্রভাবিত করেছেন বস্‌সী।

প্রধান বিচারপতি জি রোহিণীর নেতৃত্বাধীন দুই সদস্যের এক বেঞ্চ মঙ্গলবার বলেন, ‘‘জনস্বার্থ নয়, প্রচারের স্বার্থেই এই মামলা করতে চাইছেন সতীশ।’’

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

 

উপরে