আপডেট : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৭:৩৩

মোদি সরকারের বড় কেলেঙ্কারি ২৫১ রূপির ফোন!

বিডিটাইমস ডেস্ক
মোদি সরকারের বড় কেলেঙ্কারি ২৫১ রূপির ফোন!

মাত্র চার ডলার বা ২৫১ রুপিতে স্মার্টফোন! বিশ্বজুড়ে যতটা হইচই ফেলেছে, ততটাই সন্দেহ তৈরি করেছে মানুষের মনে। সত্যি সত্যি ২৫১ রুপিতে ফোন পাওয়া যাবে কি না, তা নিয়ে সংশয় ভারতীয় নাগরিকদের মনেই। সম্প্রতি ভারতে কংগ্রেসদলীয় এক সাংসদ ফ্রিডম ২৫১ স্মার্টফোনটিকে শতাব্দীর সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি বলে মন্তব্য করেছেন।
কংগ্রেস সাংসদ প্রমোদ তিওয়ারি শুক্রবার ভারতের রাজ্যসভায় ২৫১ রুপির স্মার্টফোনকে ‘প্রতারণা’ হিসেবে উল্লেখ করে ভারতের বিজেপির নেতাদের এই প্রতারণার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ তোলেন এবং সরকারের কাছে এর উত্তর চান।
তিওয়ারি অভিযোগ করেন, ‘আমি সুনির্দিষ্ট অভিযোগ করছি। এ সরকার বড় একটি কেলেঙ্কারি করছে। বিজেপির আমলে শতাব্দীর সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারির ঘটনাটি ঘটবে। এ পণ্যটি উদ্বোধনের সময় বিজেপি নেতারা উপস্থিত ছিলেন। কেলেঙ্কারির সঙ্গে তাঁরা যুক্ত। তাঁরা মেক ইন ইন্ডিয়া কথা বললেও মেক ইন ফ্রড করছে।’
২৫১ রুপিতে মানুষের হাতে স্মার্টফোন তুলে দেওয়ার বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে কংগ্রেসের এই সংসদ দাবি করেন, ইতিমধ্যে ছয় কোটি ফরমায়েশ পেয়েছে এই ফোন কোম্পানিটি। ২৫১ রুপি করে হলেও শত শত কোটি টাকা তারা সংগ্রহ করেছে। এই ফোনটি তৈরির খরচ এক হাজার ৪০০ রুপি হবে বলে এর পরিচালক স্বীকার করলেও তারা কীভাবে মাত্র ২৫১ রুপিতে তা বিক্রি করবে, তা সত্যিই আশ্চর্যের বিষয়।
তিওয়ারি প্রশ্ন তোলেন, ২৫১ রুপিতে যদি স্মার্টফোন পাওয়া যায়, তবে অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো কেন ২০-৩০ হাজার রুপিতে ফোন বিক্রি করছে। হয় এতে কোনো গলদ আছে বা ওই ফোন কোম্পানিগুলোর কোনো গলদ আছে। সরকারকে এর উত্তর দিতে হবে।
ভারতের নয়ডাভিত্তিক উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান রিংগিং বেল ফ্রিডম ২৫১ নামে ২৫১ রুপি দামের ফোন তৈরির ঘোষণা দেয়, যাতে সরকারের সমর্থন আছে বলে তারা দাবি করে। (সূত্র: পিটিআই) 

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আইএম

উপরে