আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২২:৩৫

১১৯ বসন্ত পাড়ি দিয়েছে পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক মহিলাটি!

বিডিটাইমস ডেস্ক
১১৯ বসন্ত পাড়ি দিয়েছে পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক মহিলাটি!

রাণী ভিক্টোরিয়ার শাসনামলে দক্ষিণ আমেরিকায় জন্ম নেয়া সেলিনা ডেল কারমেন ওলি সম্প্রতি পালন করলেন তার ১১৯তম জন্মদিন!

যে বছর তিনি আর্জেন্টিনায় জন্মেছিলেন সেবছরই ওস্কার ওয়াইল্ড জেল থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন। তিনি তার দীর্ঘ জীবনে দীর্ঘ পথ পরিক্রমা অতিক্রম করেছেন পেয়েছেন মানুষের ভালোবাসা।

ঊনবিংশ শতকের শেষ দিকে জন্ম নিয়ে তিনি অতিক্রম করেছেন পুরো বিংশ শতক। শুধু তাই নয়, তিনি স্বচ্ছন্দে এই একবিংশ শতাব্দীতেও অনায়াসে হেঁটে চলেছেন পৃথিবীর পথে!

নিজেকে তিনি পৃথিবীর সবচেয়ে পুরনো নারী হিসেবে দাবি করেন। সপ্তাহখানেক আগেই তার গর্বিত পরিবার পালন করেছে তার ১১৯টি বসন্ত ছোঁয়ার বিরল মাইনফলক’কে।

সেলিনার জন্মসনদের ছবিতে দেখা যায় ১৮৯৭ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারী তিনি পৃথিবীতে এসেছিলেন। আর ইতিহাস বলে, সেবছরই ঔপন্যাসিক ওস্কার ওয়াইল্ড জেল থেকে ছাড়া পান এবং একই বছরে রাণী ভিক্টোরিয়া হীরকজয়ন্তী উৎসব পালন করেন।

বুয়েন্স আয়ার্সের একটি পল্লী এলাকার বস্তিতে তিনি তার ছেলেকে নিয়ে বাস করেন। ১৯৬০ সালে তার স্বামী স্যাগোভিয়া’র সঙ্গে তিনি রাজধানী অভিমুখী হয়েছিলেন। আর তার পরপরই স্বামী তাকে রেখে পরপারে পাড়ি জমায়।

তার বৃদ্ধ ছেলে আলবার্তো জানায়, তাদের মা ধীরে ধীরে দৃষ্টি শক্তি হারাচ্ছেন ও বধির হয়ে যাচ্ছেন। যদিও এ বয়সেই তিনি ওষুধ পত্র ছাড়াই দিব্যি চলছেন।

আলবার্তো দাবি করেন, তার মা কখনোই ধূমপান করেন নি। তিনি সারাজীবন মানুষের ভালোবাসায় বেঁচে আছেন।

আর্জেন্টিনার একটি সংবাদপত্রে মা সম্পর্কে সে বলে, কঠোর পরিশ্রম, যে কোন জায়গায় পায়ে হেঁটে চলাচল আর ভালোবাসা, কেবলই ভালোবাসা তাকে বাঁচিয়ে রেখেছে এত কাল।

সেলিনার ১২ সন্তানের মাঝে কেবল আলবার্তোই বেঁচে আছে। বাকীরা বৃদ্ধ হয়ে মরে গেছে।

সূত্র: মিরর

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/মাঝি

উপরে