আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৭:৩০

নেপালের বিধ্বস্ত বিমানের বাঁচেনি কেউ

বিডিটাইমস ডেস্ক
নেপালের বিধ্বস্ত বিমানের বাঁচেনি কেউ

নেপালের পোখারা থেকে জমসম যাওয়ার পথে দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় বিধ্বস্ত উড়োজাহাজের ২৩ আরোহীর সবার মৃত্যু হয়েছে বলে দেশটির সেনাবাহিনী জানিয়েছে। নেপালি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল তারা বাহাদুর কর্কির বরাত দিয়ে কাঠমান্ডু পোস্টের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চার ঘণ্টা অনুসন্ধানের পর উড়োজাহাজটির ডানা ও লেজের অংশ খুঁজে পেয়েছেন তারা।

দুই ইঞ্জিন বিশিষ্ট বিমানটিতে ৩জন ক্রু এবং ২০ জন যাত্রী ছিল। যাত্রীদের মধ্যে একজন চীনা এবং একজন কুয়েতি। এছাড়া দুটি শিশুও ছিল। তবে যাত্রীদের বিস্তারিত পরিচয় এখনো প্রকাশ করা হয়নি।

বুধবার সকালে রিসর্ট শহর পোখারা থেকে উড্ডয়নের কিছু পরই প্লেনটি নিখোঁজ হয়। এরপর প্রায় চার ঘণ্টা অনুসন্ধানের পর মিয়াগদি জেলার সোলি গোপতেভির এলাকায় এটির ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পান উদ্ধারকারীরা।

নেপালের বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রী আনন্দ পোখরেল জানিয়েছেন, সোলি গোপতেভিরের কেকারকো বুত্তা এলাকায় একটি জঙ্গলে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

তবে দুর্ঘটনার কারণ এখনো জানায়নি বিমানটি পরিচালনকারী তারা এয়ারলাইন্স বা নেপাল কর্তৃপক্ষ। 

এর আগে কাঠমাণ্ডু থেকে ২০০ কিলোমিটার পশ্চিমে রিসর্ট শহর পোখারা থেকে জমসমের উদ্দেশে উড্ডয়ন করে বিমনিটি। ১৮ মিনিটের মধ্যে এর গন্তব্যে পৌঁছানর কথা ছিল। কিন্তু উড্ডয়নের ১০ মিনিট পরই কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় প্লেনটির।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/মাঝি

উপরে