আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৭:৪১

মেয়েকে ধর্ষণ ও ছেলের সঙ্গে বিকৃত যৌনতার জন্য বাবার যাবজ্জীবন

বিডিটাইমস ডেস্ক
মেয়েকে ধর্ষণ ও ছেলের সঙ্গে বিকৃত যৌনতার জন্য বাবার যাবজ্জীবন

নিজের ৯ বছরের মেয়েকে ধর্ষণ ও ১২ বছরের ছেলের সঙ্গে বিকৃত যৌন সম্পর্ক স্থাপনের অপরাধে এক বাবাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে ভারতের বোম্বে হাইকোর্ট। নিম্ন আদালতে পাঁচ বছর হাজতবাসের সাজাকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের দারস্থ হয়েছিলেন ওই ব্যাক্তি। তবে হাইকোর্ট বলেছে, এই জঘন্য কাজের জন্য দোষীর আরও কঠোর শাস্তি হওয়া উচিৎ। আইনের বিধান না থাকায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হলো।

বোম্বের কারভেনগরের ৩৭ বছর বয়সী ওই বাবার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে স্থানীয় একটি বিউটি পার্লারের মালিকের কাছে আশ্রয় চায় দুই ভাইবোন। এসময়, কারণ জানতে চাইলে কান্নায় ভেঙে পড়ে দুই ভাইবোন।

মেয়েটি জানায়, তাদের মা নেই। তার বাবা দীর্ঘদিন ধরে তাকে ধর্ষণ করে চলেছে। বাবার বিকৃত মানসিকতা থেকে ছাড় পায়নি ছেলেটিও। এরপরই তাদের বয়ানের ওপর ভিত্তি করে ওই বাবার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। তিন বছর ট্রায়াল চলার পর ২০১৪ সালের জানুয়ারী মাসে অভিযুক্তকে পাঁচ বচরের সাজা দেওয়া হয় নিম্ন আদালতে।

পরের মাসেই সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে ওই বাবা দাবি জানায় যে সে নির্দোষ। তার অল্প বয়সের কথা বিবেচনা করে তার প্রতি আদালত যেন আরেকটু সহানুভূতিশীল হয়। মামলা পূনর্বিবেচনার রায়ে হাইকোর্ট জানায়, এই ঘটনায় যখন মা নেই, তখন সন্তানদের সম্পর্কের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা করেছে বাবা। মেয়েটি সাহস করে বাবার বিরুদ্ধে গিয়ে গোটা ঘটনা বর্ণনা করায় তার প্রশংসাও করেছেন বিচারপতি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/মাঝি

উপরে