আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৭:৩২

দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে সিংহ, ঘুম উড়েছে গোটা শহরের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে সিংহ, ঘুম উড়েছে গোটা শহরের

পরনে জংলা পোশাক। হাতে বড় বড় বন্দুক। তাতে আবার ঘুমপাড়ানি গুলি ভরা। নাইরোবির আনাচকানাচ চষে বেড়াচ্ছে বণ্যপ্রাণী দফতরের এক দল কর্মী। একটা নয়, ১৯ ফেব্রুয়ারি ভোররাতে শহরের জাতীয় উদ্যান থেকে পালিয়ে গিয়েছে এক জোড়া সিংহ।

আর তাদের আতঙ্কেই আপাতত ঘুম উড়েছে গোটা শহরের। কেউ বলছেন, হাসপাতালে দেখা মিলেছে তাদের। কেউ আবার বন দফতরের সাইটে টুইট করে জিজ্ঞেস করছেন, বাড়ির কচিকাঁচাদের ঘরে তালাবন্ধ করে রাখবেন কি না। যত ক্ষণ না পর্যন্ত তাদের বাগে আনা যাচ্ছে, ঘুম নেই বন দফতরেরও।

কেনিয়ার বন্যপ্রাণী পরিষেবা দফতর সূত্রের খবর, আজ ২০ ফেব্রুয়ারি  সকালেই ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় ঢুকে পড়েছে ওই দুই হিংস্র চারপেয়ে। যার জেরে গোটা শহরে জারি করা হয়েছে চূড়ান্ত সতর্কতা। শহরবাসীর উদ্দেশে বণ্যপ্রাণী দফতরের মুখপাত্র পল উদোতো বলেছেন, ‘‘সিংহগুলি অত্যন্ত হিংস্র।

ওদের মোকাবিলা করার কথা ভুলেও ভাবেন না। তার ফল উল্টো হবে।’’ সিংহ দু’টোকে বাগে পেতে শহরবাসীর সাহায্যও চেয়েছে বন দফতর।

১১৭ বর্গ কিলোমিটার জুড়ে বিস্তৃত নাইরোবি জাতীয় উদ্যান। উদ্যানের এক দিক বিদ্যুতের তার দিয়ে মোড়া। ওই প্রান্ত থেকেই দেখা যায় নাইরোবির আকাশ ছোঁয়া বহুতলগুলি। অন্য তিন দিক খোলা।

বছরের বিভিন্ন সময় পরিযায়ী প্রাণী আসে এই জাতীয় উদ্যানে। তাদের আসা-যাওয়ার রাস্তা খোলা রাখতেই উদ্যানের তিন দিকে নেই কোনও বেড়া। কিন্তু বিদ্যুতের তার এড়িয়ে শহরের দিক দিয়েই প্রাণী দু’টো কী ভাবে উদ্যান ছেড়ে পালিয়ে গেল, তা বুঝতে পারছেন না কর্তৃপক্ষ। শহরবাসীদের কেউ কেউ বলছেন, একটা সিংহী আর একটা শাবককে শহরে ঘুরতে দেখা গিয়েছে।

কেই বলছেন, সংখ্যাটা ছয়। আবার কেউ বলছেন, সিংহী নয়, পালিয়েছে দুটো পূর্ণবয়স্ক সিংহ। তবে  স্থানীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, পালিয়ে গিয়েছে দু’টি সিংহই। সব মিলিয়ে নাইরোবি জুড়ে এখন চূড়ান্ত ধন্দ।

২০ ফেব্রুয়ারি সকালেই বন দফতরে ফোন গিয়েছিল, শহরতলি লাঙ্গাতার কাছে এক হাসপাতালে দেখা মিলেছে তাদের। পরে খবর আসে কিবেরা এলাকায় ঘোরাঘুরি করছে তারা। এখানে দেশের বৃহত্তম বস্তি এলাকা।

কিন্তু বনকর্মীরা ওই দুই জায়গা গিয়ে কোনও জন্তুর দেখা পাননি। বন দফতরের ওই দলের সঙ্গে রয়েছেন পশু চিকিৎসকেরাও। সিংহ দু’টিকে ঘুমপাড়ানি গুলি করার পরে তাদের পরীক্ষা করার জন্যই চিকিৎসকদের সঙ্গে রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে বন দফতর।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে