আপডেট : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১০:০৮
পণের টাকা দিতে না পারায়

নববিবাহিতা স্ত্রীকে ৭ লাখ টাকায় পর্ন ডিরেক্টরের কাছে বিক্রি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নববিবাহিতা স্ত্রীকে ৭ লাখ টাকায় পর্ন ডিরেক্টরের কাছে বিক্রি

ভারতের বিহারের মেয়েটির বিয়ে হয় হরিয়ানার টিকু পাতিকারের সঙ্গে। । গত ৮ জানুয়ারি তাঁর বিয়ের কিছুদিন পর সে বিহার ছেড়ে তাঁর শ্বশুড়বাড়ি হরিয়ানায় যায়।

হরিয়ানায় যাওয়ার পর থেকেই তাঁর শ্বশুড়বাড়ির লোকের তাঁকে গাল দেওয়া শুরু করেন। কারণ, খুব সহজ। পণ। মেয়ের বাড়ি থেকে ২ লক্ষ টাকা পণ পাওয়ার কথা  ছিল টিকু পাতিকারকে। শুধু তাই নয়। সঙ্গে একটি মোটরবাইকও। কিন্তু পয়সার অভাবে রীতার বাবা সেই টাকা আর মোটরবাইক দিতে পারেননি। তাই শুরু হয় মানসিক এবং শারীরিক নির্যাতন। কবে দেবে পণের টাকা! তবু সহ্য করে যাচ্ছিল মেয়েটি।

কিন্তু একদিন নতুন বউ হয়ে আসা মেয়েটি জানতে পারে, তাঁর স্বামী টিকু পাতিকার বোনের সঙ্গে শলাপরামর্শ করছে। তাঁকে এক রাতের জন্য দিয়ে দিচ্ছেন আর একজনের কাছে! সেই লোকটা পর্ন বানান! আর এর জন্য মেয়েটির স্বামী পাবেন ৭ লক্ষ টাকা! ব্যস, বিষয়টি বুঝে যান নতুন বউ, তাঁকে বাঁচতে গেলে পালাতে হবে। তাই কোনওরকমে পালিয়ে যান তিনি।

সূত্র : জিনিউজ

উপরে