আপডেট : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৩:১৪

হিন্দু-মুসলিম বিদ্বেষ সৃষ্টির এজেন্ডা নিয়েছে বিজেপি: রাহুল গান্ধী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
হিন্দু-মুসলিম বিদ্বেষ সৃষ্টির এজেন্ডা নিয়েছে বিজেপি: রাহুল গান্ধী

বিজেপি ও আরএসএস মানুষের মাঝে বিভক্ত করতে এবং বিদ্বেষ সৃষ্টি করার এজেন্ডা অনুসরণ করছে। বিজেপি বছরের পর বছর ধরে মুসলিমদের সন্ত্রাসী বলে অভিহিত করে হিন্দু এবং মুসলিমদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করার চেষ্টা করেছে।

সোমবার (১৫ফেব্রুয়ারি) অসমের সোনিতপুর জেলায় দলীয় এক সমাবেশে ভারতের প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেসের ভাইস-প্রেসিডেন্ট রাহুল গান্ধী রাহুল গান্ধী বিজেপি ও আরএসএস-এর কঠোর সমালোচনা করে এসব কথা বলেন।

রাহুল গান্ধী অভিযোগ করে বলেন, ‘বিজেপি এবং আরএসএস মানুষকে জোর করে নিজেদের মতাদর্শ চাপিয়ে দিয়ে বিভাজন এবং বিদ্বেষ সৃষ্টিকারী এজেন্ডা অনুসরণ করে চলেছে। সম্প্রতি তা জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনাক্রমেও দেখা গেছে।’

তিনি বলেন, ‘কংগ্রেস এ রকম নয়। আমরা সমস্ত সংস্কৃতিকে সম্মান করে থাকি। আমরা সকল মানুষের মধ্যে সদ্ভাবনা, ভ্রাতৃত্ব, ঐক্য এবং বন্ধুত্বে বিশ্বাস করি।’

রাহুল বলেন, ‘বিজেপি বছরের পর বছর ধরে মুসলিমদের সন্ত্রাসী বলে অভিহিত করে হিন্দু এবং মুসলিমদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করার চেষ্টা করেছে। ওরা ২০১৪ সালে আদিবাসীদের ওপর আক্রমণের সময় বোড়ো এবং আদিবাসীদের মধ্যে বিভাজন সৃষ্টি করে অসমেও ওই নীতি অনুসরণ করেছে।’

কংগ্রেস নেতা বলেন, ‘ওরা প্রত্যেক জায়গায় এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়েও সন্ত্রাসবাদ দেখতে পাচ্ছে এবং নিজেদের মতাদর্শের সঙ্গে সহমত না হলেই তাকে সন্ত্রাসী বলে অভিহিত করছে বিজেপি।’

তিনি বলেন, ‘বিজেপি এবং আরএসএসের দেশের সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য সম্পর্কে মানুষের উদ্বেগের প্রতি কোনো শ্রদ্ধা বোধ নেই। তারা শুধু চায় প্রত্যেকে তাদের চিন্তাভাবনা অনুসরণ করুক।’

হিন্দুত্ববাদী বিজেপি ও আরএসএস সম্পর্কে কটাক্ষ করে রাহুল গান্ধী আরও বলেন, ‘বিজেপি এবং আরএসএস দেশপ্রেমের লাইসেন্স দেয়ার দোকান খুলেছে। তারাই কেবল বলতে পারবে কে দেশপ্রেমী এবং কে দেশপ্রেমী নয়।’

তিনি বলেন, ওরা ওই লোক যারা গান্ধীজীর বুকে তিনটি গুলি চালিয়েছিল। ওরা ওইসব লোক যারা ইংরেজদের সামনে ক্ষমা প্রার্থনা করেছিল। ওরা আমাদের দেশপ্রেমের লাইসেন্স দেয়ার কে? গান্ধীজীর হত্যাকারীদের কাছ থেকে কোনো সার্টিফিকেটের প্রয়োজন নেই।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে