আপডেট : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১২:৩৯

মানবতা বিরোধী অপরাধ সংগঠিত হয়েছে সিরিয়ায়: জাতিসংঘ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মানবতা বিরোধী অপরাধ সংগঠিত হয়েছে সিরিয়ায়: জাতিসংঘ

সিরিয় সরকার ও বিদ্রোহীদের হাতে আটক বন্দিরা বিপুল সংখ্যায় মারা যাচ্ছে। এটাকে বন্দিদের নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার একটি রাষ্ট্রীয় নীতি এবং মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের শামিল বলে বর্ণনা করা হয়েছে জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে।

জাতিসংঘের তদন্তকারীরা বলছেন, বিদ্রোহীদের সমর্থন দেয়া এবং সরকারের আনুগত্য না করার অভিযোগে হাজার হাজার বেসামরিক নাগরিককে বন্দী করে রেখেছে সিরিয় সরকার। এদের অনেকেই নির্বিচার হত্যাকাণ্ডের শিকার হচ্ছেন।

প্রতিবেদনে বিদ্রোহী গোষ্ঠিগুলোর বিরুদ্ধেও বিনা বিচারে সিরিয় সেনাদের হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সরকারের অনুগত এবং সরকারবিরোধী উভয় পক্ষই ব্যাপকমাত্রায় যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত করেছে। অনেক বন্দি নির্যাতিত হয়েছেন, অনেককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে এবং অন্যরা খাদ্য, পানি কিংবা চিকিৎসার অভাবে মারা গেছেন।

শত-শত প্রত্যক্ষদর্শীর সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে এবং ২০১১ সালের মার্চে সিরিয়ায় বিক্ষোভের সময়কাল থেকে শুরু করে এই প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে।

জাতিসংঘের তদন্তকারীরা বলছেন, সিরিয়া সরকারের হাতে হাজার-হাজার বেসামরিক নাগরিক বন্দি অবস্থায় আছেন অনানুগত্য কিংবা বিদ্রোহীদের সমর্থনের কারণে।

প্রতিবেদনে বন্দিদের অবস্থাকে ‘জরুরী এবং বড় আকারে মানবাধিকার রক্ষার সংকট’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

জাতিসংঘ বলছে, যুদ্ধের পুরো সময়টাতে হাজার হাজার বন্দি দুই পক্ষের হাতেই নিহত হয়েছে। ধারণা করা হয় সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে এখনো পর্যন্ত আড়াই লাখের অধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

দেশটি থেকে প্রায় ৪৬ লাখ মানুষ পালিয়ে গেছেন। দেশটির অভ্যন্তরে এখনও রয়ে যাওয়া ১ কোটি ৩০ লাখ মানুষের জন্য জরুরী ভিত্তিতে মানবিক সাহায্য প্রয়োজন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে