আপডেট : ৩০ জানুয়ারী, ২০১৬ ১২:০৩

শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে পর্নোগ্রাফি!

বিডিটাইমস ডেস্ক
শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে পর্নোগ্রাফি!

চারদিকে শোকের আবহ। চলতি বছর নববর্ষের সময় সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-ছেলে দুজনেই প্রাণ হারান। তাই একইসঙ্গে ৩৩-বছর বয়সী বাবা সাইমন লিউইস এবং তার ছেলের শেষকৃত্য অনুষ্ঠান চলছিল। আর তাঁদের শেষ শ্রদ্ধা জানাতে বড় পর্দায় চালানো হল একটি ভিডিও। সেখানেই ঘটে বিপত্তি।

বড় পর্দায় ভিডিওটি চালাতেই লজ্জায়, রাগে চিৎকার করে উঠলেন কেউ কেউ। কারণ শ্রদ্ধা জানাতে যে ভিডিওটি চালানো হয়েছে, সেটি একটি পর্ন ভিডিও। এ ঘটনায় সবাই হতচকিত হয়ে পড়েন। এরপর তাড়াহুড়ো করে ভিডিও প্লেয়ারটি বন্ধ করা হয়।

জানা গেছে, বর্ষবরণের রাতে গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা যান সিমন লিউইস (৩৩)। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সিজ়ার করে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। জন্মের কিছুক্ষণ পরই মারা যায় শিশুটি। কার্ডিফের থর্নহিল ক্রিমেটোরিয়ামে বাবা ও শিশুপুত্রের শেষকৃত্য সম্পন্ন হচ্ছিল। সেখানেই এই ঘটনাটি ঘটে।

শেষকৃত্য অনুষ্ঠানটি পরিচালনাকারী রেভারেন্ড লিওনেল ফ্যানথর্প বলেন, তিনি যখন বাইবেল থেকে বাণী পড়ে শুনাচ্ছিলেন তখনই হঠাৎ করে তার পেছনে ভিডিও স্ক্রিনে পর্নো দেখানো শুরু হয়। ঘটনায় সবাই হতচকিত হয়ে পড়েন।

ভিডিওটি চালুর পরই চিৎকার করে উঠেন সিমন লিউইসের শ্বশুর। ভিডিও বন্ধ করতে বলেন তিনি। কিন্তু, ভিডিও বন্ধ করতে চার মিনিট সময় লেগে যায়। এই ঘটনায় শোকাহত পরিবারটি মুষড়ে পড়েছে। কার্ডিফ শহরের কর্তৃপক্ষ ঐ পরিবারের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চেয়েছে।একটি শোকের অনুষ্ঠানে কিভাবে এমন ঘটনা ঘটলো, তারা এখন সেটি তদন্ত করে দেখছে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম  

উপরে