আপডেট : ২৫ জানুয়ারী, ২০১৬ ২১:১৮

শিশু চুরি ঠেকাতে ইন্টারনেটে অভিনব উদ্যোগ

বিডিটাইমস ডেস্ক
শিশু চুরি ঠেকাতে ইন্টারনেটে অভিনব উদ্যোগ

চীনে ক্রমশ আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে চলেছে শিশু চুরি হওয়ার মতো ঘটনা। যতই দিন যাচ্ছে শিশু চুরি ততই বেড়ে চলেছে। তবে এই ব্যাপারে নেই সুনির্দিষ্ট কোন পরিসংখ্যান। যদিও আনুমানিক পরিসংখ্যান হিসেবে এই সংখ্যা দাড়ায় ১০ হাজারের মতো।

চুরির শিকার হওয়া শিশুদের সন্ধান পাওয়ার জন্য ‘বেবি কাম হোম’ নামে একটি প্রচারণা সংস্থা হাতে নিয়েছে নতুন উদ্যোগ। তারা হারিয়ে যাওয়া শিশুদের নামের তালিকা তৈরি করে প্রকাশ করেছে ওয়েইবো নামের যোগাযোগ মাধ্যমে। এর মাধ্যমে ইতোমধ্যেই বেশ কয়েকটি শিশুকে খুঁজে পেয়েছেন তাদের বাবা-মা।

চুরি হওয়া শিশুদের নামের তালিকা প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে তাদের ৩৫ হাজার ফলোয়ার বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে নিখোঁজ হওয়া  শিশুদের ছবি প্রকাশ করতে থাকে।

সেখানে বাবা-মায়েরা তাদের নিখোঁজ হয়ে যাওয়া সন্তানের ছবি দিয়ে বিস্তারিত ঠিকানা জানাচ্ছে নিজেদের। একই ভাবে যারা কোন শিশু পেয়েছেন তাদের ছবি দিচ্ছেন ওয়েবসাইটটিতে।

চীনে কেন শিশুদের চুরি করা হয়? এ ব্যাপারে পুলিশ জানায়, অপহরণ করা শিশুদের কালোবাজারে বিক্রি করে দেয়া হয়। অধিকাংশ সময় তাদের দত্তকের জন্য কিনে নিয়ে যাওয়া হয় আর মূল্য হিসেবে দেয়া হয় মোটা অঙ্কের অর্থ। তবে ছেলের চেয়ে মেয়ে শিশুই অপহরণের চাহিদা বেশি বলে জানা যায়।

বেবি কাম হোম নামে এই ডিজিটাল সংস্থাটির একজন মূখপাত্র জানায়, মানুষ এখন প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে গেছে। মানুষের হাতে হাতে এখন স্মার্টফোন। যার ফলে চুরি হওয়া শিশুদের ছবি ছড়িয়ে গেলে সহজেই তা মানুষের হাতে হাতে পৌছে যাবে এবং হারিয়ে যাওয়া শিশুদের খুঁজে বের করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করেন। তবে এর পাশাপাশি সরকারের হস্তক্ষেপও প্রয়োজন বলেও তিনি মনে করেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

 

উপরে