আপডেট : ১৮ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৪:৫৫

বিশ্বের সবচেয়ে বিপদজনক ব্যক্তিটিই হচ্ছেন পরবর্তী সৌদি রাজা!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বিশ্বের সবচেয়ে বিপদজনক ব্যক্তিটিই হচ্ছেন পরবর্তী সৌদি রাজা!

সৌদি রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজ তার ছেলে মুহাম্মাদ বিন সালমানের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে চান। বিডিটাইমস সহ বিশ্বের নামি-দামি বেশকয়েকটি পত্রিকা এই মুহম্মদ বিন সালমানকেই বিশ্বের সবচেয়ে বিপদজনক ব্যাক্তি হিসেবে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিলো।

ইনস্টিটিউট ফর গালফ এ্যাফেয়ার্স এক প্রতিবেদনে জানায়, ৮০ বছর বয়স্ক অসুস্থ রাজা সালমান তার ছেলে ডেপুটি যুবরাজ ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী মুহাম্মাদ বিন সালমানের কাছে শিগগিরই ক্ষমতা ছেড়ে দিতে চান এবং এ ব্যাপারে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। বর্তমানে মুহাম্মাদ বিন সালমানকেই সৌদি আরবের প্রকৃত বাদশা ও সর্বেসর্বা বলে মনে করা হয়।

এই পরিকল্পনা অনুযায়ী বর্তমান যুবরাজ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নায়েফকে দ্রুতই তার পদগুলো থেকে সরিয়ে দেয়া হবে। নায়েফ মার্কিন সরকারের সু-নজরে থাকা সত্ত্বেও তার চাচাতো ভাই ও বর্তমান রাজার ছেলে মুহাম্মাদ বিন সালমান তাকে ক্রমেই একঘরে করে ফেলছেন।

অনেকেই মনে করছেন সৌদি আরবে ক্ষমতা নিয়ে শিগগিরই রাজ-পরিবারের মধ্যে তীব্র সংঘাত শুরু হয়ে যেতে পারে।

সৌদি আরবের বর্তমান মন্ত্রীসভার সব সদস্যই রাজ-পরিবারের সদস্য। তবে একমাত্র ব্যতিক্রম হলেন বর্তমান তেলমন্ত্রী আলী আন নায়িমি। তাকে এই পদ থেকে সরিয়ে দিয়ে রাজা সালমানের ছেলে আবদুল আজিকে এ পদে বসানো হবে।

বাদশা সালমান বর্তমান যুবরাজ নায়েফকে ডিঙ্গিয়ে তার ছেলে ডেপুটি যুবরাজ সালমানকে বাদশা করার পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ভাইদের সমর্থন পাওয়ার আশায় তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন।

১৯৩২ সালে ইবনে সৌদ প্রতিষ্ঠিত সৌদি সাম্রাজ্যে রাজতান্ত্রিক প্রথা চালু রয়েছে। কেবল রাজার ছেলেই সেখানে রাজা হতে পারে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে