আপডেট : ১৩ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৫:১৬

‘মুসলমানদের অপমান করবেন না’স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষনে ওবামা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
‘মুসলমানদের অপমান করবেন না’স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষনে ওবামা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার তার সপ্তম ও শেষ ‘স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন’ ভাষণে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান দলীয় প্রাথী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে কটাক্ষ করে বক্তব্য দিয়েছেন। মার্কিন কংগ্রেসে তিনি এই ভাষণ দেন।

তিনি বলেন, "যখন কোনও মার্কিন রাজনীতিবিদ নিজ দেশের বা বিদেশের মুসলিমদের অপমান করে বক্তব্য দেয়, যখন কোনও মসজিদ ভাংচুর করা হয়, সেটা আমাদেরকে নিরাপদ করে না।

এটা সঠিক নয়। এটা বিশ্বের চোখে আমাদেরকে ছোট করে ফেলে। আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছনোকে কঠিন করে তোলে। এটা আমাদের দেশের সাথে প্রতারণা করার সামিল"।

বিষাক্ত রাজনীতির অবসান কামনা করে তিনি বলেন, আমি আমার দেশের রাজনীতিকে হয়ত রুজভেল্ট-লিংকনের সমপর্যায়ে নিতে পারিনি তবে চেষ্টা অব্যাহত আছে।

আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে যুক্তরাষ্ট্রের ভবিষ্যত নীতি নির্ধারনে মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত করে নির্বাচনে কালোটাকার ব্যবহার রোধ ও নাগরিকদের স্বাধীনভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগের উপরে গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

কুখ্যাত ‘গুয়ান্তানামো বে’ কারাগার বন্ধের কথাও তিনি ভাষণে পুনঃব্যক্ত করেন।

জলবায়ু পরিবর্তন চুক্তির বিরোধীতাকারীদের কটাক্ষ করে তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিয়ে অনেকে বিতর্ক করতে চায়। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব রোধে এখন পর্যন্ত কার্যকর কোন বৈজ্ঞানীক পদ্ধতি আবিষ্কার হয়নি।

বিশ্বকে রক্ষা করতে হবে। আপনি যদি এই চুক্তির বিরোধীতা করতে চান তাহলে কার্যকরি পদ্ধতি আবিষ্কার করুন, নইলে আপনি একা হয়ে যাবেন।

উল্লেখ্য, মুসলমান এবং অভিবাসীদের নিয়ে করা বিভিন্ন মন্তব্যের কারণে সমালোচিত হয়ে আসছেন রিপাবলিকান দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প।

প্রেসিডেন্ট ওবামার স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষণ চলাকালে ট্রাম্পও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিজের শেষ মেয়াদের একেবারে শেষ প্রান্তে চলে এসেছেন ওবামা। আজ ছিল তার শেষ স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষণ।

মার্কিন কংগ্রেসেরে সামনে দেয়া বার্ষিক এই ভাষণে প্রথা অনুযায়ী পরবর্তী বছরের জন্য নতুন নতুন পরিকল্পনা এবং সরকারের আসন্ন নতুন নীতিমালা তুলে ধরেন মার্কিন প্রেসিডেন্টরা।

কিন্তু আজকের ভাষণে প্রেসিডেন্ট ওবামা নতুন পরিকল্পনা তুলে ধরার বদলে নিজের বিগত কার্যক্রমের গুরুত্ব তুলে ধরাতেই বেশী মনযোগী ছিলেন।

 

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে