আপডেট : ৯ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৮:০৫

গুড়িয়ে দেওয়া হল মাওয়ের সেই সোনার মূর্তি

অনলাইন ডেস্ক
গুড়িয়ে দেওয়া হল মাওয়ের সেই সোনার মূর্তি

আধুনিক চীনের পথপ্রদর্শক,কিংবদন্তি কমিউনিস্ট নেতা মাও সেতুংয়ের ৩৭ মিটার উঁচু সোনায় মোড়ানো মূর্তিটি স্থাপনের মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে তা আবার ভেঙে গুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।

সরকারি অনুমোদন না থাকার কারণে মূর্তিটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে বলে জানা যায়। মূর্তি স্থাপনের উদ্যোক্তা ও গ্রামবাসীর উদ্ধৃতি দিয়ে চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা পিপলস ডেইলি এই তথ্য জানিয়েছে।

মূর্তিটি ভেঙে ফেলার কিছু ছবিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও এসেছে বলে পিপলস ডেইলির উদ্ধৃতি দিয়ে বিবিসির সংবাদে বলা হয়েছে।

টুইটারে আসা বিভিন্ন ছবিতে দেখা যায় মূর্তিটির পা ভেঙে ফেলা হয়েছে, মাথাটি কালো কাপড়ে ঢাকা। তবে ছবিগুলোর সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে বিবিসি।

মধ্য চীনের হেনান প্রদেশে থুংশু গ্রামের এক ক্ষেতের মধ্যে স্থাপন করা হয়েছিল মাওয়ের এই স্বর্ণমূর্তিটি।

মূর্তিটি তৈরীতে প্রায় ৩০ লাখ ইউয়ান বা চার লাখ ৬০ হাজার ডলার ব্যয় হয়েছিল। যার সিংহভাগই  জোগান দিয়েছিলেন স্থানীয় এক ব্যবসায়ী। তবে গ্রামবাসীও মূর্তি তৈরীতে অর্থ সহায়তা করেছিল।

থুংশু কাউন্টির একজন ভূমি কর্মকর্তা মূর্তিটি সরিয়ে ফেলার খবর পিপলস ডেইলিকে নিশ্চিত করেছেন। তবে ঠিক কী কারণে মূর্তিটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে তা তিনি জানেন না বলে জানিয়েছেন।  

যেখানে মূর্তিটি স্থাপন করা হয়েছিল, সেই ঝুশিগ্যাংয়ের গ্রাম প্রধান বলেছেন-এটির নিবন্ধন নেওয়া হয়নি, অনুমোদনও নেওয়া হয়নি তাই সরিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

মাওয়ের এই মূর্তিটি স্থাপনের সময় এটাকে সময় ও অর্থের অপচয় বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। স্থান নির্বাচনকেও অবিবেচনা প্রসূত  বলে সমালোচনা করেছিলেন কেউ কেউ। 

মূর্তিটি যে প্রদেশে বসানো হয়েছিল সেই থুংশুতে ১৯৫০ এর দশকে মাওয়ের গৃহীত নীতির কারণে সৃষ্ট দুর্ভিক্ষে কয়েক লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছিলো বলে অভিযোগ রয়েছে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

 

 

উপরে