আপডেট : ৭ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৭:১৪

হুতি-হাদিতে বিভক্ত ইরান-সৌদি: ইয়েমেনে বিমান হামলা ও সংঘর্ষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
হুতি-হাদিতে বিভক্ত ইরান-সৌদি: ইয়েমেনে বিমান হামলা ও সংঘর্ষ

ইয়েমেনে হাদি গোষ্ঠির পক্ষ হয়ে হুতি বিদ্রোহীদের অবস্থান লক্ষ্য করে বুধবার রাতে ব্যাপক বিমান হামলা চালিয়েছে সৌদি সমর্থিত বাহিনী। দেশটিতে অবস্থানরত হুতি বিদ্রোহীদের সমর্থন দিচ্ছে ইরান।

প্রখ্যাত শিয়া ইমাম নিমর আল নিমর’র শিরোশ্চেদকে কেন্দ্র করে গত এক সপ্তাহ ধরে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে ইরান এবং সৌদি আরব।

ইয়েমেনের বন্দর নগরী মায়দিতে প্রবেশ করেছে দেশটির সৌদি সমর্থিত বাহিনী। এতে দেশটির নয়মাসের গৃহযুদ্ধে নতুন একটি যুদ্ধক্ষেত্র উন্মুক্ত হল। 

উত্তর ইয়েমেনে ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীদের শক্ত অবস্থান আছে। এই বিদ্রোহীরা রাজধানী সানাসহ দেশটির অধিকাংশ স্থান দখল করে আছে। 

সৌদি সমর্থিত ইয়েমেনি প্রেসিডেন্ট মনসুর হাদির অনুগত বাহিনীকে হটিয়েই রাজধানী সানার দখল নিয়েছিলো হুতি বিদ্রোহীরা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, মায়দি এলাকায় হাদি অনুগত বাহিনীকে প্রবেশ করার সুযোগ করে দিতে এলাকাটিতে কয়েক সপ্তাহ ধরে ব্যাপক বিমান হামলা চালায় সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোট বাহিনী।

মায়দি বন্দর থেকে হাদি বাহিনীকে দেশটির উত্তরাঞ্চলের আরো ভিতরে প্রবেশ করানোর চেষ্টা হলেও হুতিদের প্রতিরোধ ও পেতে রাখা ভূমিমাইনের কারণে ব্যাপক প্রতিরোধের সম্মুখীন হচ্ছে। 

হাদি বাহিনীর কর্মকর্তা মেজর জেনারেল আদেল কুমাইরি সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম আল আরাবিয়া টেলিভশনে জানিয়েছেন, তার বাহিনী শহরটির ‘পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে’।

কিন্ত হুতি নিয়ন্ত্রিত ইয়েমেনি বার্তা সংস্থা সাবা হুতি জোট বাহিনীর মুখপাত্র শারাফ লুকমান বরাতে জানান, ‘বীরোচিত প্রতিরোধে’ হাদিদের অগ্রগতি রোধ করা হয়েছে। এতে সৌদি সমর্থিত বাহিনীর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

বুধবার রাতে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী সানায় ৩০ বারেরও বেশি বিমান হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছে শহরটির বাসিন্দারা। এটি গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে শহরটি উপর সৌদি বাহিনীর চালানো অন্যতম তীব্র হামলা।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/পিএম

উপরে