আপডেট : ৪ জানুয়ারী, ২০১৬ ২১:৫৩

ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করলো আরো তিন দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করলো আরো তিন দেশ
ইরানে শিয়াদের বিক্ষোভ

প্রখ্যাত শিয়া ধর্মগুরু নিমর আল-নিমর’র শিরোশ্ছেদের পর ইরানের সৌদি দূতাবাসে আগুন দেয় বিক্ষোভকারীরা। এর প্রতিক্রিয়ায় সৌদি আরবের পর এবার তার সমর্থক রাষ্ট্রগুলোও ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক বন্ধন ছিন্ন করার ঘোষনা দিয়েছে।

রোববার সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-জোবায়ের ইরানের সঙ্গে সকল কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দেন। এরই ধারাবাহিকতায়, সোমবার সৌদি আরবের সমর্থক রাষ্ট্র বাহরাইন, সুদান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতও ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছে।

বিবিসি’র এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, সৌদি এবং ইরান যথাক্রমে সুন্নী ও শিয়া মুসলিমদের প্রতিনিধিত্বকারী দেশ।

আমেরিকার পঞ্চম নৌবহরকে আতিথ্য দেয়া বাহরাইনে বিপুল সংখ্যক শিয়া জনসংখ্যার বসবাস হলেও দেশটির ক্ষমতা আসলে সুন্নি রাজতন্ত্রের হাতে এবং এই দেশটি বর্তমান সৌদি রাজতন্ত্রের অনুগত। তাই তারা ইরানের বিরুদ্ধে ঘোরতর অনধিকার চর্চার অভিযোগ তুলে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষনা দেয়। একই সঙ্গে ইরানি কূটনীতিকদের ৪৮ ঘন্টার মধ্যে দেশ ছাড়ার সময়ও বেধে দেয়।

একই অভিযোগ তুলে ইরানি কূটনীতিকদের দেশ ছাড়ার আল্টিমেটাম দিয়েছে সুদান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতও।

উল্লেখ্য, আরব বসন্তের সময় ২০১১ সালে সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলে অনুষ্ঠিত সরকার বিরোধী একটি গণ আন্দোলনে ইন্ধন দেওয়ার অভিযোগ তোলা হয় শিয়া ধর্মগুরু নিমরের বিরুদ্ধে। ওই আন্দোলনে শিয়াদের বিরুদ্ধে সীমা লঙ্ঘনের অভিযোগ করা হয়।

দুই বছর আগে নিমরকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয় এবং গত অক্টোবর মাসে তার বিরুদ্ধে মৃত্যুদন্ডের রায় দেওয়া হয়। শনিবার তার মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়।

নিমরের মৃত্যুদন্ডের প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে ইরানের বিক্ষোভকারীরা তেহরানে সৌদি দূতাবাসে অগ্নিসংযোগ ঘটায়।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/পিএম

উপরে