আপডেট : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১২:৩২

আর বন্দুক নয়: অনুপ চেটিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আর বন্দুক নয়: অনুপ চেটিয়া

আর বন্দুক নয়, শান্তি আলোচনার মাধ্যমেই আসাম সমস্যার রাজনৈতিক সমাধান চান অনুপ চেটিয়া।

চারটি মামলায় জামিন মেলার পরে জেল থেকে বেরিয়েই সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

অনুপ চেটিয়া বলেন, ‘দীর্ঘ ৩৬ বছরের সংগ্রামে আমাদের সদস্যদের পাশাপাশি অনেক সাধারণ মানুষের প্রাণ গিয়েছে। তাই কেন্দ্রীয় কমিটির সঙ্গে কথা বলে শান্তি আলোচনার মাধ্যমেই আসম-সমস্যার রাজনৈতিক ও গণতান্ত্রিক সমাধান চাইছি’।

দেশে ফিরে প্রথম দেখাতে স্ত্রী ও সন্তানদের চিনতে পারেননি অনুপ চেটিয়া।এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘সত্যি, খুবই লজ্জিত ওই ঘটনার জন্য। ১৯৯৫ সালে স্ত্রীকে নিয়ে আসাম ত্যাগ করি। তখন মেয়ে বুলবুলির দু’বছর, ছেলে জুমনের সাত বছর বয়স। বউয়ের মাথায় একঢাল চুল, স্বাস্থ্যও ভাল’।

‘কিন্তু গুয়াহাটির আদালতে আসা মণিকার চুল কাটা, রোগা। তাই প্রথমে একেবারে চিনতে পারিনি।মণিকা আমার লড়াইতে যে ভাবে পাশে দাঁড়িয়েছে, তাতে ধন্যবাদ দিয়ে ঋণ শোধ হওয়ার নয়’।

মুক্তি পেয়ে কেমন লাগছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের কারাগার থেকে বেরোবার পরেই মুক্তির স্বাদ পেয়ে গিয়েছিলাম। বাংলাদেশ পেরিয়ে যখন মেঘালয়ের দাউকিতে ঢুকি, তখন প্রাণভরে স্বদেশের গন্ধ নিয়েছি। ভেবেছিলাম, ওখান থেকে সোজা গুয়াহাটি আসব’।

‘কিন্তু পথে মত বদল করে সিবিআই আমায় দিল্লি নিয়ে যায়। তবু হতাশ হইনি। জানতাম, ফাঁসির সাজা যখন হয়নি, তখন মুক্তি একদিন পাবই’।

এসময় বাংলাদেশের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের কারাগারের কর্মী, মানবাধিকার কর্মী, আইনজীবীরা সবাই আমার সঙ্গে খুবই ভাল ব্যবহার করেছেন’।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে