আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০৮:৩০

বক্স অফিস কাঁপাচ্ছে কে এই নান, কি এই নান?

অনলাইন ডেস্ক
বক্স অফিস কাঁপাচ্ছে কে এই নান, কি এই নান?
বক্স অফিস কাঁপাচ্ছে হলিউডের ভৌতিক ছবি ‘দ্য নান’। ‘কনজুরিং’ সিরিজের মধ্যে ‘দ্য নান’-কে বলা হচ্ছে সবচেয়ে ভয়ংকর ছবি। তার প্রমাণও পাওয়া যাচ্ছে। বিশ্বব্যাপী এ পর্যন্ত ছবিটি ১৭৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঘরে তুলেছে। গত ৭ সেপ্টেম্বর মুক্তির প্রথম দিন ৫৪ মিলিয়ন ডলার আয় করে ‘কনজুরিং’ সিরিজের মধ্যে উদ্বোধনী দিনের আয়ের রেকর্ড গড়েছে ছবিটি। ‘দ্য নান’ ছবির গল্প এক সন্ন্যাসিনী শয়তানকে ঘিরে, যার নাম ‘ভ্যালাক’। চরিত্রটির প্রথম আবির্ভাব ঘটে ‘কনজুরিং’ সিরিজের তৃতীয় ছবি ‘কনজুরিং ২’ ছবিতে। চরিত্রটি এতোটাই জনপ্রিয়তা পায় যে, পরিচালক কারিন হার্ডি ‘দ্য নান’ শিরোনামে একটি পুর্নাঙ্গ ছবি বানিয়ে ফেলেন। আর সেই থেকে ভয়ংকর শয়তান চরিত্রটি সুনিপুণভাবে ফুটিয়ে তোলার কারিগরও পাচ্ছেন দর্শকদের বাহবা। কিন্তু তিনি কে? হলিউড অভিনেত্রী বনি অ্যারন্স-ই হচ্ছেন ‘দ্য নান’। শুধু ‘কনজুরিং’ সিরিজে নয়, অনেক আগ থেকেই ছবিতে ভয় দেখিয়ে নজর কেড়েছেন বনি অ্যারন্স। ১৯৯৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘মূলহল্যান্ড ড্রাইভ’ ছবিতে ‘দ্য বাম’ চরিত্রে অভিনয় করে সর্বপ্রথম আলোচনায় আসেন এই অভিনেত্রী। এরপর ‘আই নো হু কিলড মি’, ‘ডামের ভার্সেস গেসি’, ‘ইন অ্যালিনেবল’ ও ‘স্প্রেডিং ডার্কনেস’-এর মতো ভৌতিক ধাঁচের ছবিতে অভিনয় করে যথেষ্ট প্রশংসা কুড়ান বনি অ্যারন্স। সিনেমাপ্রেমীদের কাছে এখন ভয়ংকর নারী হিসেবে পরিচিত হলেও বেশকিছু বিষয়ভিত্তিক ছবিও করেছেন মার্কিন এই অভিনেত্রী। ভয়ংকর রুপি অভিনয়ের জন্য অনেক পরিচালকই তাঁকে অন্য চরিত্রের জন্য নিতে চান না। বেশকিছু ছবি থেকে নাকি বাদও পড়েছেন। তবে এতে তিনি মোটেও চিন্তিত নন, বরং চরিত্রটির সফল রূপ দিতে পারায় তিনি বেশ উচ্ছ্বসিত। তাঁর কথায়, ‘মানুষ ভৌতিক ছবি দেখে ভয়কে উপভোগ করার জন্য। একপর্যায়ে ভয় তাড়াবারও চেষ্টা করে। আর যখনই ভয়টা কেটে যায়, তখন ঐ অনুভূতির সঙ্গে কোনো কিছুই তুলনীয় নয়।’
উপরে