আপডেট : ১৭ জুলাই, ২০১৮ ১১:৪০

মুক্তি পেতে বিছানায় যেতে চেয়েছিলেন তিনি

অনলাইন ডেস্ক
মুক্তি পেতে বিছানায় যেতে চেয়েছিলেন তিনি

ফটোশুট করতে ইতালির মিলানে গিয়ে অপহরণের শিকার হন। সে সময় ছয়দিন তাকে আটকে থাকতে হয়েছিল। ফলে তাকে তখন ভয়াবহ অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। করতে হয়েছিল অপহরণকারীর সঙ্গে প্রেম। মুক্তি পেতে বিছানায় যাওয়ারও পরিকল্পনা করেছিলেন। 

 বলছিলাম ব্রিটিশ মডেল ক্লোয়ি আইলিংয়ের কথা। সম্প্রতি তিনি বিবিসির সাংবাদিক ভিক্টোরিয়া ডার্বিশায়ারের সঙ্গে আলাপচারিতায় জানিয়েছেন ভয়াবহ সেই অভিজ্ঞতার কথা।

 ক্লোয়ি জানান, অপহরণের পর দুইদিন একটি সিন্দুকের ড্রয়ারের সঙ্গে শিকলবদ্ধ ছিলেন। পরে পরিস্থিতি অনুকূলে আনতে অপহরণকারীর সঙ্গে বিছানায় যেতে রাজি হয়েছিলেন তিনি।  এই মডেল বলেন, আমরা যতোই কথা বলছিলাম, ততোই মনে হচ্ছিল, আমাদের মাঝে একটি বন্ধন তৈরি হচ্ছে। যখনই আমি বুঝতে পারি সে (অপহরণকারী) আমাকে পছন্দ করতে শুরু করেছে, তখন আমি সেই সুযোগ কাজে লাগাতে থাকি।

 তিনি জানান, লুকাস হারবা নামে এক যুবক গত বছরের জুলাইয়ে ফটোশুটের কথা বলে তাকে মিলানে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পর তাকে জোর করে নেশাদ্রব্য খাওয়ানো হয় এবং একটি ব্যাগে ভরে গাড়িতে করে খামারবাড়িতে নেয়া হয়। 
 
সেখানে হারবা তাকে জানায়, মুক্তিপণ হিসেবে ৩ লাখ ইউরো দিতে হবে। না হলে যৌনদাসী হিসেবে তাকে বিক্রি করে দেয়া হবে।আইলিং বলেন, তখন আমার মনে হয়েছিল, সে (হারবা) যা বলছে তা সত্যি। এক পর্যায়ে সে আমার কাছে জানতে চায়, আমাকে সে চুমু খেতে এবং আমার সঙ্গে কোনো সম্পর্ক গড়তে পারবে কি-না। 
 
উত্তরে মডেল বলেন, 'ভবিষ্যতে আমাদের মধ্যে কিছু হলেও হতে পারে’। এমন জবাব শুনে (হারবা) তখন বেশ উচ্ছ্বসিত হয়ে যায়। সে বিষয়টি এগিয়ে নেয়ার চিন্তা করছিল।
 
আইলিং আরও বলেন, এক পর্যায়ে যখন হারবা বুঝতে পারে যে মুক্তিপণের অর্থ পাওয়া যাবে না, তখন সে আমাকে মুক্ত করে দেয় এবং মিলানে ব্রিটিশ কনস্যুলেটে নিয়ে যায়।
 
ক্লোয়ি আইলিংয়ের সেই অপহরণকারী হারবাকে মিলানের একটি আদালত ১৬ বছর ৯ মাসের কারাদণ্ড দেয়।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রুমা

 

উপরে