আপডেট : ২৪ মার্চ, ২০১৬ ১৭:২১

জাস্টিন বিবার আমার স্বামী!

বিডিটাইমস ডেস্ক
জাস্টিন বিবার আমার স্বামী!

সারা বিশ্ব জুড়ে জাস্টিন বিবারের ভক্তের সংখ্যা গুনে শেষ করা যাবে কিনা জানিনা। তবে এতটুকু বলা যায়, তার ভক্তদের মধ্যে মেয়ে ভক্তের সংখ্যাই বেশী। নিচে এমনই এক ভক্ত কিনবা তারও বেশী কিছু হয়ে যাওয়া এক তরুনীর গল্পই জানাবো।

গ্যাব্রিয়েল নিউটন বিবার, সম্ভবত বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা জাস্টিন বিবারের ভক্তদের মধ্যে অন্যতম। জাস্টিন বিবারের জন্য রয়েছে তার মাত্রা ছাড়া প্রেম। তার শরীরে আছে পাঁচটি বিবারের ট্যাটু, ওয়ারড্রব ভর্তি বিবারের ছবি আঁকা যত জামাকাপড়, আছে বিবারের সমস্ত গানের রেকর্ড। ঘর ভর্তি শুধু বিবারের ছবি আর বিরাট সাইজের বিবারের কার্ডবোর্ড নিয়ে তিনি রাতে ঘুমোনও। আর সবচেয়ে মজার ব্যপার হচ্ছে গাব্রিয়াল নিউটন বিবার নিজেকে জাস্টিন বিবারের স্ত্রী ভাবতেই পছন্দ করেন, এবং এর জন্যই অফিশিয়ালি তার নিজের নামের সাথে সংযুক্ত করেন বিবারের নাম।

২২ বছর বয়েসী এই তরুণী বলেন, ‘যখন আমি মানুষদের সাথে কথা বলি তখন আমি সবসময় জাস্টিনকে আমার স্বামী বলেই পরিচয় দেই। মানুষদের কাছে এটা একটু বিব্রতকর শোনায় কারন, আমরা আসলে বিবাহিত নই।’

২০০৯ সালে জাস্টিন বিবারের ১ম গান ‘ওয়ান টাইম’ রিলিজ পেলে গেব্রিয়াল তার প্রেমে পড়েন।

এই তরুনী আরো বলেন, ‘২০০৯ সালে আমি যখন তাকে প্রথম দেখি আমি ওর প্রেমে পড়ে যাই। ওর চুল, ওর ভঙ্গী এসব মিলিয়ে সে ছিল খুব কিউট। জাস্টিন বিবারই আমার সমগ্র পৃথিবী।’

গাব্রিয়াল জাস্টিন এর প্রেম এতটাই নিমজ্জিত যে তিনি কখনই অন্য কারো সাথে ডেট করেন নি। তরুনী বলেন, ‘আমি ভাবি জাস্টিনই আমার জীবনের একমাত্র পুরুষ। আমি সাধারনত অন্য কারো সাথেই কোথাও ঘুরতে বের হই নাহ। আমি আমার কিশোরীবেলা থেকে এখন আরো বেশী জাস্টিনের জন্য পাগল। সে দিনে দিনে আরো সেক্সি হয়ে উঠছে।’

গাব্রিয়াল স্বীকার করেন যে তার প্রেম নিয়ে তিনি এইভাবে পাবলিক হয়েছেন এর কারন শুধু একটাই যে তিনি হয়ত এতে জাস্টিনের সাথে দেখা করার সুযোগটা পেতে পারেন।

‘আমার স্বপ্ন জুড়ে শুধু জাস্টিন আর জাস্টিন। মাঝে মাঝে ভাবি আমি কি করবো যদি সত্যি সত্যি আমার সাথে জাস্টিনের দেখা হয়! একটা স্বপ্ন এমন ছিল যে, জাস্টিন আমাকে স্টেজে ডেকে উঠিয়েছে আর ‘ওয়ান লেফট লোনলি গার্ল’ এইটা গানটা গাচ্ছে এবং সেটাও আমাকে উদ্দেশ্য করেই, তারপর ব্যাক্সটেজে আমি তার সাথে দেখা করি। এটা খুব দারুণ হত যদি আমিই তার ওয়ান লেফট লোনলি গার্ল হতাম।’  

তরুনী আরো বলেন, ‘কিন্তু সত্যি, আমি যদি তার দেখা পাই কোনদিন, কান্না ছাড়া আর কিছুই কি করতে পারবো! তার সাথে দেখা হওয়া মানে বিশাল কিছু একটা, যা আমার কাছে পৃথিবী সমান।’


বিডিটাইমসডটকম/জামি

উপরে