আপডেট : ২২ জুন, ২০১৮ ১১:১০

যে খাবারগুলো মস্তিষ্কের জন্য ক্ষতিকর

অনলাইন ডেস্ক
যে খাবারগুলো মস্তিষ্কের জন্য ক্ষতিকর

মস্তিষ্ক আমাদের পুরো দেহ ও মনের কার্যক্রমকে নিয়ন্ত্রণ করে। যতি মস্তিষ্কই ভালো না থাকে তো আমাদের শরীরের সব কার্যক্রম আমরা একদমই স্বাভাবিকভাবে চলবে না। কিন্তু প্রতিদিন আমরা এমন সব খাবার খাই যা মস্তিষ্ককে এক অর্থে অকার্যকর করে ফেলে। আসুন ক্ষতিকর খাবারগুলো কী কী জেনে নিই:

চিনি

খাবারকে মিষ্টি করতে চিনির কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু খাবারকে মিষ্টি করলেও চিনির বেশকিছু ক্ষতিকর দিক রয়েছে। চিনিতে থাকা ফ্রুকটোজে একজন মানুষের জ্ঞানচর্চার গতিকে মন্থর করে দেয়। এর ফলে স্মৃতিশক্তি কমে যায়।

ডায়েট সোডা

ডায়েট সোডা বা আর্টিফিশিয়াল সুইটনার যুক্ত খাবার নিয়মিত খেলে মস্তিষ্কের ওপরে খারাপ প্রভাব পড়ে। গবেষণায় প্রমাণিত যে, ডায়েট সোডা খাওয়ার ফলে ব্রেইন স্ট্রোক করার আশঙ্কা বেড়ে যেতে পারে। এটি স্মৃতিশক্তিও কমায়।

ঝলসানো বা পোড়ানো খাবার

ঝলসিয়ে রান্না করা খাবার আমাদের সবারই মোটামুটি পছন্দের। কাবাব জাতীয় ঝলসানো  খাবারে প্রচুর ট্র্যান্স ফ্যাট থাকে। এই ফ্যাট আমাদের মস্তিষ্কের দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতি করে। তাই এই খাবারগুলো যথাসম্ভব এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।

মাংস এবং মাখন

মাংস সাধারণত লালই হয় বেশি। আর লাল মাংস আমাদের মস্তিষ্কের জন্য ক্ষতিকর। গরুর মাংসে প্রচুর পরিমাণ স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকে যেগুলো একসময় মানুষের মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা ও স্মৃতিশক্তি কমাতে শুরু করে। এছাড়া মাখন খেলেও এরকম ক্ষতি হয় মস্তিষ্কের। তাই এই খাবারগুলো থেকে সাবধান।

বিভিন্ন জাঙ্ক ফুড

আমরা অনেকেই ফাস্ট ফুড বা জাঙ্ক ফুড খেয়ে অভ্যস্ত। চিপস, পিৎজা, বার্গার অনেকের দৈনন্দিন খাবার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। গবেষণায় প্রমাণিত যে, যারা এই জাঙ্ক ফুড বা প্রক্রিয়াজাত খাবার নিয়মিত বেশি পরিমাণে খান, তাদের আইকিউ ক্ষমতা কমতে থাকে।

শর্করা কম খাওয়া

যারা কেটোজেনিক ডায়েট মেনে চলেন, অর্থাৎ যাদের খাদ্যে শর্করার পরিমাণ কম থাকে তাদের মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা হ্রাস পেতে থাকে। ফলে সবকিছু ভুলে যাওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়। মস্তিষ্কের রোগবালাই বেড়ে যেতে থাকে। তাই শর্করা গ্রহণ করতে হবে বেশি পরিমাণে।

লবণ

সোডিয়াম আমাদের শরীরে রক্তপ্রবাহে বাধা দেয়। আমরা প্রতিদিন যে লবণ খাই, তাতে সোডিয়াম থাকে। এই সোডিয়াম মস্তিষ্কের ব্যাপক ক্ষতি করতে পারে। তাই সুস্থ থাকতে প্রতিদিন আড়াই গ্রামের চেয়ে বেশি লবণ কখনোই খাবেন না।

অতিরিক্ত মদ্যপান

অতিরিক্ত মদ্যপান কখনোই আমাদের জন্য ভালো না। মাত্রাতিরিক্ত অ্যালকোহল আমাদের মস্তিষ্ককে অসাড় করে দিতে পারে। অতিরিক্ত মদ্যপান চিন্তাভাবনাকে বিকল করে দেয়। সেই সঙ্গে মানুষের দীর্ঘস্থায়ী স্মৃতিশক্তিকে একেবারে নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

উপরে