আপডেট : ২২ জানুয়ারী, ২০১৮ ১৫:৩৭

অনিরাপদ মিলনে সিফিলিস ছড়ায়

অনলাইন ডেস্ক
অনিরাপদ মিলনে সিফিলিস ছড়ায়

নারী-পুরুষের অনিরাপদ মিলনের ফলে যে রোগটি ছড়াতে পারে তার নাম সিফিলিস।

কাদের হয় : যারা সমকামী বা মুখ পথে অভ্যস্থ বা রোগাক্রান্ত ব্যক্তির রক্ত গ্রহণের মাধ্যমে এ রোগ ছড়াতে পারে। সিফিলিস আক্রান্ত মা থেকে গর্ভজাত শিশুও আক্রান্ত হতে পারে।

যেভাবে ছড়ায় না : কমোডের সিট, দরজার পাতল, সুইমিং পুল, গরম পানির টাব, বাথটাব, একই জামাকাপড় পরা বা বাসন ব্যবহার করলে সিফিলিস ছড়ায় না।

রোগে সুপ্তিকাল : জীবাণু দেহে প্রবেশের পর প্রাথমিক উপসর্গ দেখা দিতে ৯-৯০ দিন সময়ের প্রয়োজন হয়। সাধারণত ১৫-২১ দিনের মধ্যে বেশিরভাগ উপসর্গ দেখা যায়।

পরীক্ষা : রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে রোগ শনাক্ত করা যায়। প্রত্যেক গর্ভবতী নারীর সিফিলিস পরীক্ষা করা উচিত। রক্ত পরিসঞ্চালনের সময়েও এ টেস্ট করা উচিত। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করলে প্রাথমিক পর্যায়ে রোগ সম্পূর্ণ ভালো হয়ে যায়। স্বামী-স্ত্রী উভয়েরই চিকিৎসা নেয়া উচিত।

জটিলতা : চিকিৎসা না করালে গোপন অঙ্গে ঘা দ্রুত ছড়াতে থাকে। সেই সঙ্গে জ্বর ও মাথাব্যথার মতো উপসর্গ দেখা দেয়। কুঁচকির গ্রন্থি বড় হয়ে যায়। রোগ পায়ুপথ, ঠোঁট, মুখ, খাদ্যনালী এমনকি শ্বাসনালীতেও ছড়িয়ে পড়তে পারে।

সতর্কতা : একবার সিফিলিস হলে দ্বিতীয়বার হবে না, এমন নিশ্চয়তা নেই। চিকিৎসার পরও সংক্রমণের ঝুঁকি থেকে যায়।

উপরে