আপডেট : ১৫ মার্চ, ২০১৬ ১৪:০০

যোনি থেকে ডিসচার্জ যে ৫টি বিষয়ের লক্ষণ হতে পারে

অনলাইন ডেস্ক
যোনি থেকে ডিসচার্জ যে ৫টি বিষয়ের লক্ষণ হতে পারে

দু’টি পিরিয়ডের মধ্যবর্তী সময়ে অর্থাৎ একটি পিরিয়ড সাইকলের মধ্যে এক-দু’দিনের সাদা ডিসচার্জ একটি স্বাভাবিক বিষয়। এই নিয়ে চিন্তা করার কিছু নেই। দীর্ঘক্ষণ ইউরিন আটকে রাখলেও অল্প হোয়াইট স্পটিং হতে পারে। এছাড়া যৌন উত্তেজনার ফলে ডিসচার্জ তো আছেই। কিন্তু সাদা ডিসচার্জ কোনও বড়সড় রোগের ইঙ্গিত হতে পারে। নীচে রইল ৫টি বিষয় যার লক্ষণ এই ধরনের ডিসচার্জ— 

১) লিউকোরিয়া হল মেয়েদের একটি সাধারণ রোগ যার মূল লক্ষণই হলে যোনি থেকে অতিরিক্ত হোয়াইট ডিসচার্জ। এতটাই বেশি পরিমাণে এই ডিসচার্জ হয় যে অনেক সময়ে এই জন্য স্যানিটারি ন্যাপকিনও ব্যবহার করতে হয়। 

২) তাছাড়া ঘন সাদা ডিসচার্জ গর্ভধারণের লক্ষণও হতে পারে। এই সময়ে সার্ভিক্সকে সুস্থ রাখার জন্য শরীর বেশি পরিমাণে ডিসচার্জ করায়। তবে যতক্ষণ ডিসচার্জে কোনও গন্ধ নেই এবং রংও হলদে বা সবজেটে নয়, ততক্ষণ চিন্তার কোনও কারণ নেই। 

৩) হলদেটে অথবা সবজেটে ডিসচার্জ ইস্ট বা যে কোনও ধরনের ইনফেকশনের লক্ষণ। ব্যাকটেরিয়াল ভ্যাজাইনোসিস বা অন্য কোনও যৌনরোগ শরীরে বাসা বেঁধে থাকলেও এই ধরনের ডিসচার্জ হয়। পাশাপাশি যদি ডিসচার্জ স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি থকথকে হয় তবেও তা কোনও ইনফেকশনের কারণে হতে পারে।  

৪) ডিসচার্জে যদি এক ধরনের বাজে গন্ধ থাকে তবে তা ব্যাকটেরিয়াল ভ্যাজাইনোসিসের কারণে হতে পারে। এমন কিছু খেয়াল করলে সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত এবং পার্টনারের সঙ্গে যৌনমিলন বন্ধ রাখা উচিত যতক্ষণ না চিকিৎসা শুরু হয়। 

৫) যৌন মিলনের সময়ে শারীরিক উত্তেজনায় যোনি থেকে যে ডিসচার্জ হয় তা স্বাভাবিক। কিন্তু যদি এই ডিসচার্জ জলের মতো স্বচ্ছ না হয় এবং তরল না হয়ে ঘন হয়ে ডিপোজিশন হয় ভালভার ভিতরদিকে এবং ক্লিটোরিসের নীচে, তবে একবার চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া ভাল। অনেক সময়েই এটি ইস্ট ইনফেকশনের লক্ষণ হতে পারে।   

উপরে