আপডেট : ৩০ জানুয়ারী, ২০১৬ ২১:২৫

স্বাস্থ্য সম্পর্কে আপনার মূত্রের রং কি বলে জেনে নিন নিজেই

বিডিটাইমস ডেস্ক
স্বাস্থ্য সম্পর্কে আপনার মূত্রের রং কি বলে জেনে নিন নিজেই

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য মুত্র একটি প্রয়োজনীয় উপাদান। মূত্রের রং, গন্ধ, মাত্রা এবং ঘনত্ব আপনার স্বাস্থ্য সম্পর্কে অনেক কিছুই বলে দেবে। তবে এ ব্যাপারে কিছু পথ রয়েছে, আপনি সেগুলো জেনে নিন-

১. স্বচ্ছ/রংহীন

আপনার মূত্র যদি রংহীন এবং স্বাভাবিক হয় তবে আপনি বুঝে নিবেন আপনার শরীরে জলের অভাব নেই এবং আপনি নিয়মিতই জলপান করছেন।

২. ফ্যাকাশে খড়ের মতো রং

এমনটা মূত্রের স্বাস্থ্যকর রং। এটার মানে হলো- আপনার জলের ঘাটতি নেই এবং আপনি ভালো আছেন।

৩. স্বচ্ছ হলুদাভ

এখনো আপনি সুস্থ্য আছেন। আপনার শরীর স্বাভাবিক এবং জলযোজিত।

৪. ঘন হলুদ

এমনটাও আপনার স্বাস্থ্যের স্বাভাবিকতা নির্দেশ করবে কিন্তু এটা জানান দেবে যে, আপনার শরীরে জলের ঘাটতি রয়েছে। এক্ষেত্রে আপনাকে শীঘ্রই জল পান করতে হবে।

৫. পীতাভ বাদামী বা মধু রং

আপনার শরীর সত্যিকার অর্থেই পানিশূন্য। তাড়াতাড়ি জলপান করুন।

৬. উজ্জল হলুদ

মূত্রের রং যদি এমন হয় তবে আপনাকে বুঝতে হবে যে, আপনি ভিটামিন সি জাতীয় খাবার বেশি খেয়েছেন অথবা আপনি ওষুধ সেবনের মধ্যে রয়েছেন।

৭. কমলা রং

মূত্রের রং এমন হলে আপনাকে দুটি ব্যপার নির্দেশ করবে। প্রথমত আপনার শরীরে প্রয়োজনীয় পানির ঘাটতি রয়েছে। এজন্য আপনাকে শিঘ্রই পানি পান করতে হবে। অন্যদিকে, এটাও হতে পারে যে, আপনি প্রচুর পরিমানে গাজর কিংবা কমলা গোত্রের কোন ফল খেয়েছেন। এটি আপনার লিভার এবং পিত্ত নালির অবস্থাকে বোঝাবে।

৮. ঘন কমলা অথবা বাদামী

মুত্রের এমন রং হলে আপনাকে সতর্ক হওয়া উচিৎ। এ অবস্থাটি আপনার শরীরের তীব্র পানি শূন্যতাকে জানান দেবে। মূত্রের এই রং যদি চলতেই থাকে তবে আপনাকে বুঝতে হবে এক্ষেত্রে আপনার লিভার আক্রান্ত হয়েছে। এক্ষেত্রে আপনাকে ডাক্তারের শরনাপন্ন হতে হবে।

৯. গোলাপী অথবা লালচে

মূত্রের এমন রং এটা জানান দেবে যে, আপনি হয়তো লাল রং মিশ্রিত কোন খাবার খেয়েছেন। হতে পারে তা বিট কিংবা কালোজামের মতো কোনকিছু। আর এসবের কোন কিছুই যদি আপনি না খেয়ে থাকেন তবে আপনাকে যা বুঝতে হবে তা হলো, আপনার মূত্র রক্ত মিশ্রিত। আর এমন অবস্থাটি বেশ কয়েকটি রোগের ইঙ্গিত বহন করে। আপনাকে ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে।

১০.নীল অথবা সবুজ

অনেক কারণেই আপনার মূত্রের রং এমন হতে পারে। হতে পারে তা খাদ্যের রং থেকে। কিংবা ঔষধ, ক্যামোথেরাপি, ভিটামিন এসব থেকেও হতে পারে। আর এসবের কোন কিছুই যদি না থাকে তবে একজন ডাক্তার দেখানোই আপনার জন্য মঙ্গলজনক।

১১. ফেনিল এবং সা সা শব্দযুক্ত

এমনটা খুব স্বাভাবিক জলজ কারণেও হতে পারে। কিন্তু এমনটা যদি ঘন ঘন হতে থাকে তবে বুঝতে হবে আপনার কিডনিতে সমস্যা দেখা দিয়েছে। তাই ডাক্তার দেখান।

 

বিডিটাইমস৩৬৫.কম/পিএম

 

উপরে