আপডেট : ২৯ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৫:৪৯

নিত্যব্যবহার্য জিনিস থেকে অসুখ

বিডিটাইমস ডেস্ক
নিত্যব্যবহার্য জিনিস থেকে অসুখ

তোয়ালে, বিছানার চাদর, টুথব্রাশ- প্রতিদিন ব্যবহার করার ফলে এগুলো হয়ে পড়ে জীবাণুযুক্ত এবং ব্যবহারের অনুপযোগী। আর এর থেকে হতে পাড়ে আমাদের অসুখ।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, ‘প্রতি তিন মাস পরপর টুথব্রাশ বদলানো উচিত। প্রতিবার ব্যবহারের পর ব্রাশকে ভালোভাবে পরিষ্কার করতে হবে। এরপর শুকাতে হবে। আর ব্রাশ সংরক্ষণ করার জন্য ঢাকনাওয়ালা ক্যাবিনেট ব্যবহার করতে হবে।এক মাস পরপর ডিশওয়াশার দিয়ে ব্রাশ পরিষ্কার করুন। পাঁচ মিনিট গরম পানিতে ফুটান। এরপর ব্যবহার করুন।’ এমনটাই জানা যায় যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম মিররে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে।

টুথব্রাশে সাধারণত ১০ মিলিয়ন জীবাণু থাকে। এর মধ্যে থাকে ব্যাকটেরিয়া এবং ফ্লু তৈরিকারী ভাইরাসও। এমনকি হেপাটাইটিস সি-র ভাইরাসও পাওয়া যায় টুথব্রাশের ভেতর। তাই একজনের ব্রাশ কখনোই আরেকজন ব্যবহার করা উচিত না।

চাদর ও তোয়ালে বদলানোরও নির্দিষ্ট সময় থাকে, জেনে নেয়া যাক সেগুলো

চাদর

বিশেষজ্ঞরা বলেন, ‘আলো-বাতাসপূর্ণ ঘর জীবাণু ধ্বংস করে।’ তাই চাদর ভালো রাখতে প্রতিদিন সকালে ঘরের জানালাগুলো খুলে দিন।মানুষের শরীরের মৃতকোষ, ব্যাকটেরিয়া, দেহের ময়লা এসব জমে থাকে চাদরে। এটি শরীরে অ্যালার্জি তৈরি করতে পারে। এসব সমস্যা থেকে রেহাই পেতে প্রতি সপ্তাহে চাদর পরিষ্কার করা দরকার।  

তোয়ালে

তিনবার ব্যবহার করার পরে তোয়ালে পরিষ্কার করে নেয়া উচিত।গোসলের তোয়ালে মৃতকোষ শোষণ করে এবং শরীরের প্রাকৃতিক ব্যাকটেরিয়াগুলো শোষণ করে। স্যাঁতসেঁতে তোয়ালেতে ব্যাকটেরিয়া বাড়ায়। একজনের তোয়ালে অন্যজন ব্যবহার করলেই এসব ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া অন্যের শরীরেও ছড়িয়ে যায়।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এনএ

 

 

উপরে