আপডেট : ৪ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৫:১৮

রিয়ালের কাছে অধরাই রয়ে গেল ভ্যালেন্সিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক
রিয়ালের কাছে অধরাই রয়ে গেল ভ্যালেন্সিয়া

২০১৫ যেখানে শেষ করেছে, ২০১৬ যেন সেখান থেকেই শুরু করেছে রিয়াল মাদ্রিদ।নতুন বছরের প্রথম ম্যাচে ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে পয়েন্ট হারিয়েছে রাফায়েল বেনিতেসের দল।

রোববার রাতে ভ্যালেন্সিয়া-রিয়ালের ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়। ড্রয়ের ফলে পয়েন্টের হিসেবে বার্সেলোনাকে স্পর্শ করার সুযোগ হারালো রাফায়েল বেনিতেসের দল।

ড্রয়ের মধ্য দিয়ে লা লিগায় ঘরের মাঠে ভ্যালেন্সিয়ার টানা অপরাজেয় পথচলাটা আরও লম্বা হলো। এক বছরের বেশি সময় ধরে লিগে ঘরের মাঠে কোনো ম্যাচ হারেনি দলটি। ২০১৪ সালের ৩০ নভেম্বর শেষবার মেস্তালায় হেরেছিল তারা, বার্সেলোনার কাছে ১-০ গোলে।

ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে গত তিন ম্যাচে জিততে না পারার হতাশা তো ছিলই, তার মধ্যে আবার এ মাঠে সবশেষ মুখোমুখি লড়াইয়ে হারতে হয়েছিল রিয়ালকে। সব মিলিয়ে রোববার রাতের ম্যাচটি রোনালদোদের জন্য কঠিন লড়াইয়ের আভাসই দিয়ে রেখেছিল।

শুরুর ১০ মিনিটে ভ্যালেন্সিয়ার দুটি আক্রমণ সে সম্ভাবনাই জাগায়। তবে ষষ্ঠদশ মিনিটে প্রথম সুযোগ পেয়েই রিয়ালের এগিয়ে যাওয়ায় ফেভারিটদের জয়ের সম্ভাবনা জেগেছিল।

গোলটি ছিল দারুণ দলীয় প্রচেষ্টার ফল, আরও বিশেষ করে বললে ‘বিবিসি’ নামে পরিচিত হয়ে ওঠা রিয়ালের আক্রমণভাগের নৈপুণ্য। বেনজেমা এক জনকে কাটিয়ে বল বাড়ান গ্যারেথ বেলকে, ওয়েলসের ফরোয়ার্ড চোখের পলকে ব্যাকহিল করেন রোনালদোকে, পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড খুজে নেন বেনজেমাকে। আর বল ধরে অল্প একটু এগিয়ে ডি বক্সে ঢুকে লক্ষভেদ করেন এই ফরাসি স্ট্রাইকার।  

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে পেনাল্টি থেকে ভ্যালেন্সিয়াকে সমতায় ফেরান স্প্যানিশ মিডফিল্ডার দানিয়েল পারেহো। পর্তুগিজ ডিফেন্ডার পেপে প্রতিপক্ষের মিডফিল্ডার আন্দ্রে গোমেসকে ফাউল করলে পেনাল্টিটা পায় ভ্যালেন্সিয়া।

৬৮তম মিনিটে সবচেয়ে বড় ধাক্কাটি খায় রিয়াল; দারুণ এক প্রতি-আক্রমণে উঠে আসা স্বাগতিকদের পর্তুগিজ ডিফেন্ডার জোয়াও কানসেলোকে বাজেভাবে ফাউল করায় সরাসরি লাল কার্ড দেখেন অস্ট্রিয়ার মিডফিল্ডার মাতেও কোভাসিচ।

এক জন কম নিয়ে খেলে ৮২তম মিনিটে বেলের নৈপুণ্যে ফের এগিয়ে যায় রিয়াল। জার্মান মিডফিল্ডার টনি ক্রুসের ফ্রি-কিকে হেড করে বল জালে জড়ান ওয়েলসের এই মিডফিল্ডার।

এগিয়ে যাওয়ার স্বস্তি অবশ্য এক মিনিটের বেশি স্থায়ী হয়নি স্পেনের সফলতম দলটির। স্বদেশি ফরোয়ার্ড রদ্রিগোর হেডে বাড়ানো বলে ফিরতি হেড করে গোলটি করেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড পাসো আলকাসের।

গোল পেতে মরিয়া হয়ে ওঠা রিয়াল যোগ করা সময়ে টানা তিনটি কর্নার পায়, কিন্তু কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা আর পায়নি তারা। ফলে আরও একবার ভালেন্সিয়ার মাঠ থেকে জয় না পাওয়ার হতাশা নিয়ে ফিরতে হয় রোনালদো বেলদের।

এ ড্রয়ের পর ১৮ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট হলো ৩৭। সমান ম্যাচে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে আতলেতিকো মাদ্রিদ। এক ম্যাচ কম খেলে ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে বার্সেলোনা।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এআর

উপরে