আপডেট : ১৮ মার্চ, ২০১৬ ১৯:৩২

শিশুদের সৃজনশীলতা বাড়াবে 'শিক্ষা গাঁজা’!

বিডিটাইমস ডেস্ক
শিশুদের সৃজনশীলতা বাড়াবে 'শিক্ষা গাঁজা’!

চোখ কপালে তুলে বসে আছেন? ভাবছেন, যে গাঁজাকে যুবসমাজ নষ্টের জন্য দায়ী করেন অনেকেই; সে কি-না সৃজনশীলতা বাড়াবে শিশুদের! ধূর ছাই!

আপনার জ্ঞাতার্থে বলছি, চোখ দুটি কপাল থেকে নামিয়ে কান পেতে শুনুন মন দিয়ে। অবিশ্বাস্য হলেও নাকি ব্যপারটা সত্যি। গাঁজা খেলে নাকি মস্তিষ্কের সৃজনশীলতা বৃদ্ধি পায়। অবাক করা এই তথ্যটি দিয়েছেন শিক্ষক ও শিল্পী লেওন ইনইং।

লেওন মনে করেন, স্কুলের বাচ্চাদের সামান্ন্য পরিমাণে গাঁজাই বাড়াবে তাদের সৃজনশীলতা। তিনি এটির নাম দিয়েছেন ‘শিক্ষা গাঁজা’। অস্টেলিয়ার অঙ্গরাজ্য তাসমানিয়ায় শিক্ষার হার বৃদ্ধিতে এই অভিনব পদ্ধতি গ্রহন করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

আগামী জুন মাসে মোনাতে পালিত হবে তিনদিনের বার্ষিক শীতকালীন শিক্ষা উৎসব। যেখানে তাসমানিয়ার শিক্ষার মান উন্নতি নিয়ে আলোচনা হবে। এই শিক্ষা উৎসবে অংশগ্রহণ করবেন লেওন ইনইংও এবং এই উৎসবে তিনি ‘শিক্ষা গাঁজা’ নিয়ে আলোচনা করবেন। লেওন অবশ্য ইতোমধ্যে তার এই অভিনব চিন্তাটি অনেকের সঙ্গে শেয়ারও করেছেন।

লেওন ইনইং

তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের সন্তাদের বুদ্ধি বাড়ানোর জন্য অনেক রকম ওষুধ খুঁজে থাকি। তাহলে আমরা কেনো আমাদের সন্তানের সৃজনশীলতার বৃদ্ধির জন্য এই “শিক্ষা গাঁজা” ব্যবহার করব না? আমাদের ছেলে-মেয়েদের মাদক আসক্তি থেকে মুক্তি দিতে এবং তাদের সঠিক পথে রাখার জন্য আমরা এই অল্প পরিমানে “শিক্ষা গাঁজা” সরবরাহ করতেই পারি। এটি একদিকে যেমন ছেলে-মেয়েদের সৃজনশীলতা বৃদ্ধি করবে এবং তাদের পাশাপাশি কর্ম দক্ষতা রাড়াতেও সাহায্য করবে। আমরা জানি এই রকম অদ্ভুত চিন্তা বাস্তবে রূপ দিতে আমাদের অনেক সাহসের প্রয়োজন। নতুন এই ভাবনাটি মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে আমাদেরে একটু বেগ পেতে হবে। এই উদ্ভাবনটিকে মাদক হিসেবে নয় এটিকে অভিবাবকের কাছে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে একটি মেডিকেল প্রক্রিয়া হিসাবে।’

মোনার ‍ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর মিস্টার কারমাইকেল বলেন ‘আমাদের এই চিন্তার সঙ্গে একমত হতে হবে এমন কোন কথা নেই, তবে বলতে হবে এটি একটি সাহসী এবং সৃজনশীল চিন্তা। আমাদের এই রকম বড় ও উত্তেজনাকর চিন্তা করা দরকার। শিক্ষার উন্নতি অবশ্যই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ন। শিক্ষার খাতে উন্নতির জন্য এই রকম সাহসী সিদ্ধান্ত রাখতে হবে এবং উৎসাহ দেয়া উচিত। এরকম সৃষ্টিশীল ধারণা আমাদের শিক্ষাখাতের উত্থান ঘটাতে পারে, তাই এই ব্যপারে আমাদের দরজা খোলা রাখা দরকার।’

সম্প্রতি ‘জার্নাল নিউরোসাইন্স’ নামের একটি ফাউন্ডেশন গবেষণা চালিয়ে দেখেছে যারা গাঁজা সেবন করেন তাদের মস্তিষ্কে দুই ধরনের অংশ থাকে, একটি প্রেরনার এবং একটি আবেগের। এই গবেষনাটি ২০ জন গাঁজা সেবনকারী এবং ২০জন অসেবনকারী বালকের উপরে করা হয়। যাদের বয়স ছিল ১৮ থেকে ২৫ বছরের।

দীর্ঘ তিনমাস ব্যাপী গবেষণা পরিচালনা করার পরে বিজ্ঞানীরা খুজে পেলেন, যারা সপ্তাহে প্রচুর পরিমাণে গাঁজা সেবন করেন তাদের থেকে যারা সপ্তাহে একবার গাঁজা সেবন করেন তাদের মস্তিষ্ক স্বাভাবিক থাকে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এএ

উপরে