আপডেট : ৫ মার্চ, ২০১৬ ২২:১৬

বিয়ে করবেন? সাধু সাবধান! আলো অন্ধকার দুটোই আছে..

বিডিটাইমস ডেস্ক
বিয়ে করবেন? সাধু সাবধান! আলো অন্ধকার দুটোই আছে..

দিল্লির লাড্ডু, খেলেও পস্তাতে হয়, না-খেলেও। বিয়ে এমনই দিল্লির লাড্ডু যার কথা জেনেও শেষ পর্যন্ত ছাদনাতলাতেই নিজেকে নিয়ে যায় সবাই, এ কথা বার বার বলেছেন বুজুর্গগণ। এরপরও বিবাহ থেকে উঠে আসা গরলকে নিয়ে চর্চা বন্ধ হয়নি কখনও। সম্প্রতি বিয়ের অন্ধকারাচ্ছন্ন দিকগুলোকে নিয়ে কাজ করলো এক সার্ভে-সাইট। খোলা মঞ্চে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সরব হয়েছেন অনেক মানুষ। তাঁদের মন্তব্য, ব্যাখ্যা, টিপ্পনী থেকে যা উঠে এলো, তা অনেকটা এই রকম—

• অ্যাডজাস্টমেন্ট। বিয়ে মানেই পারস্পরিক জমি ছাড়ার খেলা। কতটা জমি আপনি ছাড়তে প্রস্তুত, তা না বুঝে বারাত নিকলোবেন না।

• প্রথম কয়েক মাস দিব্যানন্দ, তারপর অনুযোগ। তারপর অভিযোগ। এবং শেষমেশ দোষারোপ। এরই নাম বিবাহ।

• প্রথম থেকে খিটিমিটি বেধে রয়েছে। পাবলিক জ্ঞান দিচ্ছে, একটা বাচ্চা হলেই সব শুধরে যাবে। খবরদার! ওই ফাঁদে ভুলেও পা দেবেন না। সমস্যা তো মিটবেই না। উল্টে শিশুটির ভবিষ্যতে চামচিকে নাচবে।

• পুরুষরা বিয়ের আগে সব সময়ে ৪৯৮ ধারা মনে রাখবেন। ভেবে রাখবেন হাজতের ভিতরটা কেমন। বিয়ের ইচ্ছেটাই উবে যাবে।

• বিয়ের সবথেকে আঁধার দিকটা হল ডিভোর্স। না, বিচ্ছেদ বেদনা-সংক্রান্ত কোনও পিছুটান নয়। ডিভোর্স ব্যাপারটাই এত হ্যাপাময় যে, আগেভাগে ভাবতে বসলে পিঁড়ি-ফোবিয়া দেখা দেবেই।

• প্রেম হোক অথবা সম্বন্ধ করে, বিয়ে মাত্রই সম্পর্ক নির্মাণের খেলা। তার জন্যে মিথ্যার উপরে মিথ্যার পাহাড় চড়বেই। সুতরাং সাধু সাবধান!  

• ব্যাচেলরের একাকীত্ববোধ আর বিবাহিতের একাকীত্ববোধের মধ্যে আকাশ-পাতাল পার্থক্য। প্রথমটা ইতিবাচক। কোথাও একটু হলেও আশা লেপটে থাকে। কিন্তু বিবাহিত যখন একা বোধ করতে থাকেন, সেটা একটা পয়েন্ট অফ নো রিটার্ন।

• বিয়ের সবথেকে খারাপ দিকটা নাকি শ্বশুরবাড়ি। তাকে মহিলারা এক প্রকার নেতি-নজরে দেখেন, পুরুষরা আর এক। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দুটোই নেগেটিভ, সেটা মনে রাখা দরকার।

• বিয়ের আর এক অর্থ সবথেকে কাছের মানুষের কাছ থেকে সবথেকে বেশি আঘাত পাওয়া।

এর পরে যাঁরা বিয়ে করতে আগ্রহ হারালেন, তাঁরা কালপেঁচার (সমাজতাত্ত্বিক বিনয় ঘোষ) রচনাটি সংগ্রহ করে পড়ে নিন। সেখানে সেই ভূয়োদর্শী মানুষটি কিন্তু শেষমেশ বিয়ে করতেই পারমর্শ দিয়েছিলেন। কারণ, বিয়ের আলোকিত দিকগুলির সংখ্যা নাকি এই আঁধারগুলোর চাইতে ঢের বেশি।

উপরে