আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৫:৫৫

এরশাদের ভালবাসা এখনো জাগ্রত; জাগ্রত বসন্তও!

বিডিটাইমস ডেস্ক
এরশাদের ভালবাসা এখনো 
জাগ্রত; জাগ্রত বসন্তও!

তেত্রিশ বছর আগে এই দিনে এরশাদের স্বৈরশাসন রুখতে গিয়ে ছাত্ররা প্রাণ দিয়েছিলেন। এবং ‘তেত্রিশ বছর কেটে গেল, কেউ কথা রাখেনি’—সেই শহীদেরা বিস্মৃতপ্রায়, কিন্তু আজও দারুণ জাগ্রত এরশাদের ভালোবাসা। আর সেই ভালোবাসা এমনই রঙিন, কেবলই এরশাদের কথা মনে আসে।

প্রেমিকের ভাবমূর্তি নিয়ে তিনি আজও ‘বর্তমান’। বছরখানিক আগেও তাঁর প্রেমিক হৃদয় বলে উঠেছিল, ‘এখন আর প্রেম-ভালোবাসা নেই। সমাজ থেকে প্রেম-ভালোবাসা উঠে গেছে’ (আমাদের সময়, ৯ ডিসেম্বর ২০১৪)।

এরশাদ যে প্রেমিক, এ তার অতি বড় শত্রুও অস্বীকার করবে না। আমাদের আশির দশক এরশাদের প্রেমের দশক। আর সেই প্রেমের ইতিহাস প্রতারণারও ইতিহাস।

এক প্রেমিকাকে তিনি দলের সংরক্ষিত কোটায় সাংসদ বানিয়েছিলেন, পরে ছুড়ে ফেলেছিলেন। আরেক নারী যুক্তরাজ্যে গিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করেছিলেন। তাঁর আরেক স্ত্রী বিদিশাকে তো একরকম নির্যাতিত ও অপমানিত হয়ে বিদায় নিতে হয়েছিল।

এরশাদের প্রেমঘটিত কাহিনিগুলো তাঁর পতনের পরে দেশের জাতীয় দৈনিকগুলোয় প্রকাশিত হয়।

অনেকের কাছে এসব এখনো মজাদার গল্প। কিন্তু এই মজার আড়ালে চাপা পড়ে যায় এরশাদ আমলের রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের ঘটনাগুলো।

এরশাদের নামটি শোনামাত্র আমাদের চোখে ভেসে উঠে এমনই এক ছবি যিনি খুব রোমান্টিক, খুব খেয়ালিমনা কিংবা অস্থির প্রকৃতির মানুষ। প্রেমিক পুরুষই বটে। নয়ত কী আর সামলিয়েছেন অনেক নারীকে। নিজের রাজেনৈতিক কার্যালয়ে দাওয়াতে রেস্তোরায় পার্কে ময়দানে তার চারপাশে সবসময়ই আছে নারী সঙ্গ। তিনি অটোগ্রাফ দিতেন আবার নারীদের দেখুন ছবিতে আপনিও চিনতে পারবেন প্রেমিক পুরুষ খ্যাত এরশাদকে।

উপরে