আপডেট : ২৪ জানুয়ারী, ২০১৬ ২০:৩৭

মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর; স্বাক্ষী থাকুন ৫টি গ্রহণের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর; স্বাক্ষী থাকুন ৫টি গ্রহণের

মহাজাগতিক রহস্যগুলো নিয়ে যারা মাথা ঘামান, বলা যায় এটা তাদেরই বছর! বিডিটাইমসের পাঠকরা নিশ্চয়ই ইতোপূর্বে পড়েছেন ৫টি গ্রহের কথা। যেগুলো ২০ জানুয়ারীর থেকে ২০ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত টানা একমাস দেখা যাবে ভোরের আকাশে। পড়েছেন এ মাসেই আবিষ্কৃত আমাদের সৌরমণ্ডলের আরও এক নতুন গ্রহের কথাও।

মহাজাগতিক রহস্য যারা উপভোগ করেন আর পছন্দ করেন আকাশে নজর রাখতে, তাদের জন্য আছে আরো এক মহাজাগতিক রহস্যের খবর!

আপনার চোখ বড় বড় হওয়ার আগেই শুনে নিন সে খবরটি!

মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর। চাঁদ-সূর্য এ দুইয়েরই গ্রহণ দেখা যাবে এই ক’মাসে। তাও একবার নয়, দু'বার নয়- পাক্কা পাঁচ বার!

মহাকাশ গবেষকরা জানিয়েছেন, বছরের প্রথম গ্রহণ দেখা যাবে ৯ মার্চ। তবে এই সূর্যগ্রহণ পূর্ণগ্রাস হলেও আমাদের দেশ থেকে সামান্যই চোখে পড়বে।

এরপর চন্দ্রগ্রহণের পালা। উপচ্ছায়া সংক্রান্ত এই চন্দ্রগ্রহণ হবে ২৩ মার্চ। ১৮ এপ্রিল আরও একটি চন্দ্রগ্রহণ এবং ১ সেপ্টেম্বর বার্ষিক সূর্যগ্রহণ হবে।

বছরের সব চেয়ে বড় গ্রহণটি দেখা যাবে ১৬ সেপ্টেম্বর। সর্বশেষ উপচ্ছায়া সংক্রান্ত এই চন্দ্রগ্রহণই হতে চলেছে এই বছরের অন্যতম মহাজাগতিক বিস্ময়- এমনটাই দাবি গবেষকদের।

উপচ্ছায়া সংক্রান্ত চন্দ্রগ্রহণ সম্পর্কে গবেষকরা জানান, সূর্য, পৃথিবী আর চাঁদ যখন প্রায় এক রেখায় চলে আসে, তখন এই ধরণের গ্রহণ হয়। পৃথিবী সূর্যকে একটু আড়াল করে রাখে, ফলে চাঁদ সূর্যের আলোয় আলোকিত হওয়ার সুযোগ পায় না। আংশিক ভাবে ছায়ায় ঢেকে থাকে চাঁদ। তখন তাকে দেখা যায় না বলেই ব্যাপারটাকে গ্রহণ বলে ধরা হয়। ছায়ায় আংশিক ভাবে ঢাকা পড়েছে বলেই এই ধরনের গ্রহণকে বলা হয় উপচ্ছায়া সংক্রান্ত!

এবার শুধু চোখ রাখুন আকাশে। সাক্ষী থাকুন মহাজাগতিক বিস্ময়ের!

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/পিএম

উপরে