আপডেট : ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৯:০৫

বিয়ের ভয়ে পালিয়েছিলেন যিশু; ভারতে ছিলেন ১৬ বছর!

পরাগ মাঝি, বিডিটাইমস ডেস্ক
বিয়ের ভয়ে পালিয়েছিলেন যিশু; ভারতে ছিলেন ১৬ বছর!

বিয়ের ভয় তাড়া করে অনেককেই। ঠিক যেমনটি করেছিল যিশু খ্রিস্টকেও। তিনি নাকি বিয়ে করার ভয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়েছিলেন। এমনটাই বলছেন গবেষকরা। শুধু তাই নয় তারা এমনও দাবি করছেন, পালিয়ে ভারতবর্ষে এসে যিশু প্রায় ১৬ বছর বসবাসও করেছেন।

হাফিংটন পোস্টের এক ব্লগে এমনটাই দাবি করেছেন ব্লগার পল ডেভিডস।

জানা যায়, নিকোলাই নাটোভিচ নামে একজন রাশিয়ান লেখকের ভারত ভ্রমণ সংক্রান্ত অনুসন্ধানী লেখায় উল্লেখ ছিল যিশু সিরিয়া হয়ে স্থলপথে কিংবা মিশর থেকে জলপথে ভারতবর্ষে আসেন এবং প্রায় ১৬ বছর সেখানে অবস্থান করে নানা স্থান পরিভ্রমণ করেন।

স্বামী অভেদানন্দ নামে ভারতীয় এক সাধু ১৯১৬ সালে আমেরিকার শিকাগো শহরে রাশিয়ান লেখকের এই বইটির সন্ধান পান। দেশে ফেরার পর তিনি লাদাখে যান ওই লেখকের লেখার সত্যতা যাচাই করতে।‌ তাতে তিনি সফল হন। সেটা যে সত্যি, তা তিনি তাঁর ‘কাশ্মীর ও তিব্বত’ গ্রন্থে লিখে গেছেন।‌

আবার অপর একটি সূত্র থেকে জানা যায়, যিশু ভারতে একবার নয়, দু’বার এসেছিলেন।‌ প্রথম বার তিনি বিয়ে করার ভয়ে ১৩ বছর বয়সে সওদাগরদের সঙ্গে সিন্ধুদেশ অতিক্রম করে ভারতে এসেছিলেন। তারপর দীর্ঘ ১৬ বছর বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করে ভারতের নানা ধর্মীয় দর্শনের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার পর ২৯ বছর বয়সে স্বদেশে ফিরে যান।

স্বদেশে ফিরে তিনি জানতে পারেন, রোমান সম্রাটের অত্যাচারে তাঁর সম্প্রদায়ের সব লোক ইসরায়েল ছেড়ে চলে গেছে।‌ তাদের খোঁজে তিনি আরো একবার কাবুল হয়ে ভারতে আসেন।‌

জানা যায়, কাবুল দিয়ে ভারতে আসার পথে তিনি ওখানকারই একটি পুকুরে হাত-মুখ ধুয়ে বিশ্রাম করেছিলেন।‌ পরবর্তীতে সেই পুকুরটির নাম হয় ‘ঈশা তালাও’। এজন্য প্রতিবছর এই ‘ঈশা তালাও’-এর ধারে মেলা বসে।‌

আরো একটি চমকপ্রদ ঘটনার উল্লেখ আছে যে, যিশু ও বুদ্ধ দুজনেই নাকি ৩০ বছর বয়সে ধর্মপ্রচার শুরু করেন।‌ তার আগে দুজনেই নির্জন পাহাড়ে ৪০ দিন তপস্যা করেছিলেন।‌

বিডিটাইমস৩৬৫.কম/পিএম

উপরে