আপডেট : ২১ মে, ২০১৮ ১৪:৩৯

মেকআপ দীর্ঘস্থায়ী করার সহজ উপায়

অনলাইন ডেস্ক
মেকআপ দীর্ঘস্থায়ী করার সহজ উপায়

পার্টির নাম শুনলেই মেয়েদের সর্বপ্রথমই মনে পড়ে মেকআপের কথা । যে কোন পার্টি তেই যে কেউ ই চায় সুন্দর করে মেকআপ করে নিজেকে আর্কষণীয় করে তুলতে । কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় সে মেক আপ লং লাস্টিং হয় না । কিছু সময় পরই চোঁখের নিচে রিংক্যাল দেখা যায় , অনেক সময় স্মাইল লাইন ফেটে যায় , বা নাকের দিকটা কালো হয়ে যায় । আজ যে মেকআপ করার পদ্ধতির কথা বলব তা সঠিকভাবে অনুসরন করলে এ সমস্যা গুলো আর হবে না ।
স্টেপ : ১
প্রথমে ভাল মানের কোন স্ক্রাব দিয়ে পুরো মুখ ভালো করে ধুয়ে নিন । এরপর দুটি বরফ ভালভাবে মুখে ঘষে নিন । বরফ আপনার মুখের অতিরিক্ত তেল শুষে নিবে ।
স্টেপ : ২
এরপর আপনার পছন্দের কোন ভাল মানের ময়েশ্চারাইজার মুখে লাগিয়ে নিন ।
স্টেপ : ৩
এরপর আসুন প্রাইমারে । প্রাইমার মেকআপের একটি বেসমেন্ট বলতে পারেন । এটি আপনার ত্বক কে করবে মসৃন এবং মুখের পোর গুলো কে ব্লার করে দিয়ে মুখে স্মুথ ভাব আনবে । যাতে মেকআপ করার সময় সেটি ভাল মত মুখে বসে । প্রাইমার একটু খানি হাতে নিয়ে পুরো মুখে ভালমত দিন ।
স্টেপ : ৪
কন্সিলর লাগান মুখে । যাদের মুখে দাগ রয়েছে , তারা এটি ইউজ করবেন । তার জন্য পুরো মুখে কন্সিলর ইউজ করবেন না । যে অংশগুলে দাগ রয়েছে , সেখানে আঙ্গুলের মাথা দিয়ে লাগিয়ে নেবেন । বিশেষ করে চোঁখের নিচে অনেকেরই ডার্ক সার্কেল দেখা যায় , তারা চোঁখের নিচে দিয়ে নিলে চোঁখ অনেক ব্রাইট লাগবে । মুখে লালচে এবং কাঁলচে অংশে লাগিয়ে ঢ্যাপ করে ভাল মত ব্লেন্ড করে নিন ।
স্টেপ : ৫
এরপর ফুল কভারেজ পার্টি মেকআপের জন্য ব্যবহার করতে হবে ফাউন্ডেশন । অনেকে অবশ্য পেনকেক ব্যবহার করে থাকে । পেনকেক দিলেও ফুল কভারেজ মেকআপ হয় , তবে পেনকেকের কিছু সাইড ইফেক্ট থাকে যা অনেকেই জানেন না । পেনকেক ব্যবহার করলে মেকআপ তোলার পর মুখ কালো এবং রুহ্ম হয়ে যায় । তাই আমি ফাউন্ডেশন-ই সাজেষ্ট করব । ফাউন্ডেশন আপনাকে ফুল কভারেজ দিবে । সারাদিন মেকআপ নিয়ে থাকলেও মোটেও ফেস কেকি লাগবে না । আপনি দুটি লেয়ার দিতে পারেন ফুল কভারেজের জন্য । একবার দিয়ে শুকানোর পর আরেকটি লেয়ার দিন । তবে ফাউন্ডেশন অবশ্যই মেট ব্যবহার করবেন । তা না হলে মেকআপ গলে যেতে পারে । মনে রাখবেন ফাউন্ডেশন ব্যবহার করার সময় হাত দিয়ে ফাউন্ডেশন ইউজ করবেন না । হাত ব্যবহার করলে পরবর্তীতে মেকআপ মুখে কালো দেখায় । মেকআপ অবশ্যই কোন ব্রাশ বা বিউটি ব্লেন্ডার দিয়ে ইউজ করবেন । ( বাজারে ভালমানের বিউটি ব্লেন্ডার পাওয় যায় ) কিন্তু কখনো ঘষে ঘষে ফাউন্ডেশন দিবেন না , মুখে বিউটি ব্লেন্ডার চেপে ধরে ধরে ফাউন্ডেশন লাগাবেন ।
স্টেপ : ৬
এরপর আসছে কন্টুরিং এর পালা । কন্টুরিং ব্যবহার করা হয় আপনার মুখের শেপ বুঝানোর জন্য । যাতে মুখে মেকআপ আরও ফোকাস করে । ন্যাচারাল শেড দিয়ে আপনি চোঁখের নিচে এবং স্মাইল লাইন বা গালে ভাল করে একটি স্টিক দিয়ে লাগিয়ে নিন । যারা নাক টাকে একটু খাড়া দেখাতে চান তারা নাকের উপরের অংশে লাগাবেন । এবং মুখের চারপাশে একে নিবেন । এরপর বিউটি ব্লেন্ডারটিকে ভালমত ভিজিয়ে নিয়ে কন্টুরিং লাইন গুলো কে ভাল মত ব্লেন্ড করে নিন । একটু সময় লাগবে ব্লেন্ড হতে , মনে হবে ব্লেন্ড হচ্ছে না । তবে ধৈর্য ধরে আস্তে আস্তে করলেই ব্লেন্ড হয়ে যাবে । তবে যারা কন্টুরিং সম্বন্ধে তেমন জানেন না , তাদের বলব এ স্টেপ টা স্কিপ করতে । অথবা মেকআপ করার আগে বাসায় ইউ টিউব দেখে এ স্টেপটি করে প্র্যাকটিস করবেন ।
স্টেপ : ৭
এরপর ভাল কোন লুজ পাউডার কন্টুরিং করা স্থানে চেপে বসিয়ে দিবেন । বাজারে অনেক ভাল মানের লুজ পাউডার রয়েছে , যা সব ধরনের ত্বকের সাথেই মানানসই । ত্বক কালার যাই হোক না কেন এটি দিলে মুখ থেকে তেল বের হয় না ।
স্টেপ : ৮
এরপর গুরুত্বপূর্ন স্টেপ হচ্ছে পাউডার লাগানো , এবং সেটি হতে হবে অবশ্যই মেট । ( উপরের লুজ পাউডার টি লাগাবেন শুধু কন্টুরিং করা স্থানে , আর ফেস পাউডার পুরো ফেসের ফিনিশিং টাচের জন্য ) পুরো ত্বকে সুন্দর করে ব্রাশ দিয়ে ফেসপাউডার মুখে লাগিয়ে নিন ।
স্টেপ : ৯
এরপর গালে ব্লাশন ব্যাবহার করবেন । ব্লাশন ব্যবহার করলে অনেক গর্জিয়াস মনে হবে এবং গালে পিঙ্কিশ একটা ভাব আসবে । যেটা পার্টি মেকআপের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ন । ব্লাশন গালের সেই অংশটিতে লাগাবেন , হাসলে গালের যে অংশটি ফুলে যায় ।
স্টেপ : ১০
অবশেষে ভাল কোন ব্রান্ডের মেকআপ সেটিংস স্প্রে দিয়ে পুরো মুখে স্প্রে করুন । মেকআপ সেটিংস স্প্রে ব্যবহার করা হয় আপনার মেকআপকে গলে যাওয়ার হাত থেকে রহ্মা করতে । মেকআপ করার সময় এই ১০ টি স্টেপ অনুসরন করলে আপনার মেকআপ নষ্ট হবে না । এবং আপনার মেকআপ হবে লং লাস্টিং ।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রুমা

উপরে