আপডেট : ২৮ মার্চ, ২০১৬ ২০:৪৭

গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ নির্মূলে ১১ টোটকা

বিডিটাইমস ডেস্ক
গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ নির্মূলে ১১ টোটকা

পার্টি আাছে। শাড়ি পরা হলো। কিন্তু আয়নায় নিজেকে ভালোভাবে দেখতেই চোখে পড়ে গেলো ঘাড়ের কালো দাগগুলো। মনের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের অভাব দেখা দিল এই দাগ গুলোর জন্য। কালচে ঘাড়ের কারণে সব সময়েই বেশ অস্বস্তিতে থাকতে হয়। কিছু ঘরোয়া পদ্ধতির মাধ্যমেই এই সমস্যাটি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এবার সেই উপায় গুলোই জানবো আমরা।

১। কাঠ বাদাম

ত্বকের জন্য অত্যাবশ্যকীয় ভিটামিন আছে কাঠ বাদামে। এছাড়াও এতে আরো কিছু পুষ্টি উপাদান আছে যা ত্বকের কালচে ভাবের সমস্যা দূর করতে পারে। ত্বক কালো হয়ে যাওয়ার সমস্যা দূর করার জন্য কাঠবাদাম বিভিন্ন ভাবে ব্যবহার করা যায়।

কাঠ বাদাম পিষে গুঁড়ো করে নিন। ১ চা চামচ কাঠবাদাম এর গুঁড়োর সাথে ১ চা চামচ পাউডার দুধ ও ১ চা চামচ মধু ভালোভাবে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। পেস্টটি ঘাড়ের পাশে ও পেছনে ভালো করে লাগান। আধা ঘণ্টা রেখে দিয়ে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এইভাবে সপ্তাহে দুই থেকে চারবার লাগান।

• ৪/৫টি কাঠবাদাম সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে দিন। সকালে বাদামগুলো পিষে পেস্ট করে ঘাড়ে লাগিয়ে কয়েক মিনিট ধরে ম্যাসাজ করুন। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে এক বা দুই দিন এটা করুন।

২। বেকিং সোডা

ত্বকের কালো দাগ দূর করার জন্য বেকিং সোডা একটি ভালো এক্সফলিয়েন্ট। বেকিং সোডার সাথে পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে ঘাড়ে লাগান। এভাবে ১৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৩। অ্যালোভেরা

আমরা জানি অ্যালোভেরা ত্বকের রঙ হালকা করে এবং ত্বককে আর্দ্র রাখে। অ্যালোভেরা চমৎকার ভাবে ত্বকের দাগ দূর করতে পারে। অ্যালোভেরা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও আরো অনেক উপকারি উপাদান সমৃদ্ধ যা ত্বকের মেরামত ও নতুন কোষ সৃষ্টিতে সাহায্য করে। অ্যালোভেরার পাতা থেকে তাজা অ্যালোভেরার জেল নিয়ে ঘাড়ের ত্বকে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফল পেতে প্রতিদিন এটা করুন।

৪। শশা

ত্বক পরিষ্কার করার জন্য শশা অনেক ভালো কাজ করে। শশা পাতলা করে কেটে ঘাড়ে লাগিয়ে ম্যাসাজ করলে এক্সফলিয়েটের কাজ হয় এবং মরা চামড়া উঠে আসে। শশা থেতলে নিয়ে বা জুস করে নিয়ে ঘাড়ে লাগিয়ে কয়েক মিনিট ম্যাসাজ করে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে নিলে ঘাড়ের কালো দাগ থেকে দ্রুত মুক্তি পাওয়া যাবে।

৫। কমলা ও কমলার খোসা

কমলার রস আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে থাকে। তাই কমলার রস ব্যবহার করতে পারেন আপনার গলা ও ঘাড়ে।

আবার ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ক্ষেত্রে ভীষণ ভাবে সাহায্য করে কমলার খোসা। কমলা চমৎকার ভাবে ত্বক পরিষ্কার করতে পারে। কমলার খোসা শুকিয়ে ভালো ভাবে গুঁড়ো করে নিয়ে এর সাথে দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। কালো ঘাড় থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য মিশ্রণটি ঘাড়ে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে দিন। তারপর ধুয়ে ফেলুন।

৬। লেবুর রস ও গোলাপ জলঃ

ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার জন্য প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে সম পরিমাণ লেবুর রস ও গোলাপজল মিশিয়ে ঘাড়ের কালো দাগে লাগিয়ে ঘুমিয়ে পরুন প্রতিদিন। সকালে উঠে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে এক মাস ব্যবহার করলেই পার্থক্যটা বুঝতে পারবেন।

৭। আলুর রসঃ

আলুর ও আছে প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান। তাই আলুর রস ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে ভূমিকা রাখে। আলু কুচি অথবা আলুর রস ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ঘাড়ের কালচে ভাব দূর হয়ে যাবে।

৮।নারিকেল তেলঃ

নারিকেল আমাদের ত্বককে শুধুমাত্র পুষ্টির যোগান দেয় না এটি আমাদের ত্বকের পোড়া ভাবও দূর করে। পরিমাণ মত নারিকেল তেল হাতে নিয়ে ঘাড় ও গলায় ম্যাসেজ করুন।

৯। ভাতের মাড়

ভাতের মাড় খুব ভাল পরিস্কারক হিসেবে কাজ করে । প্রতিদিন ভাতের মাড় দিয়ে ঘাড় ও গলা ঘষলে ভাল ফল পাবেন ।

অনেক মানুষেরই ঘাড়ের ত্বক কালো দেখা যায় যা অ্যাকান্থোসিস নিগ্রিকান্স বলে। এটা কোন ইনফেকশন নয় বা ছোঁয়াচেও নয়। সূর্যরশ্মি ও বয়সবৃদ্ধি ঘাড়ের ত্বকের বিবর্ণতার প্রধান কারণ। অন্য যে কারণগুলো এর জন্য দায়ী সেগুলো হচ্ছে- জিনগত কারণ, ডায়াবেটিস, পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম, স্বাস্থ্যবিধি না মানা, হঠাৎ করে ওজন বৃদ্ধি পাওয়া বা কমে যাওয়া ইত্যাদি। এই সমস্যাটি হলে ঘাড়ে কালো মোটা দাগ দেখা যায়। যা খুবই বিব্রতকর । তাই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে উপরের উপায়গুলো আজ থেকেই মেনে চলুন ।

১০। মধুঃ

ঘাড় ও গলার ত্বক উজ্জ্বল করতে ও ময়লা দূর করতে ব্যবহার করুন মধু। পরিমাণ মত মধু নিয়ে ত্বকে ম্যাসেজ করুন তারপর ধুয়ে ফেলুন।

১১। অলিভ ওয়েলঃ

অলিভ ওয়েল আমাদের ত্বকের জন্য অনেক উপকারি তা আমরা সবাই জানি। তাই আপনার গলা ও ঘাড়ের ত্বক সুন্দর ও নরম রাখতে অলিভ ওয়েল ম্যাসেজ করুন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে