আপডেট : ২০ মার্চ, ২০১৬ ১৮:১০

স্যুট পড়া পুরুষদের যা মাথায় রাখা উচিত

বিডিটাইমস ডেস্ক
স্যুট পড়া পুরুষদের যা মাথায় রাখা উচিত

যখন কথা হচ্ছে পুরুষদের স্যুট নিয়ে, তখন অধিক থেকে অধিকতর তথ্য দেয়া ছাড়া আর কিছুই গুরুত্বপূর্ণ নয়। কেননা এটা পুরুষদের একটা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ আউটফিট।

যে কোন পুরুষকেই স্যুট পড়লে চমৎকার লাগে। কিন্তু তারপরেও স্যুট পড়ে ছিমছাম এবং চমৎকার লাগার পেছনে কিছু শর্ত সেঁটে দেয়া আছে।

আমরা অনেক প্রশ্ন পেয়েছি যেখানে শুধু স্যুট পড়ার ব্যাপারে টিপস চাওয়া হয়েছে, তাই আমরা এখানে দিলাম একটি সম্পূর্ণ ফর্মুলা বই, যেখানে দেয়া আছে স্যুটের ব্যাপারে সকল তথ্য; যা সবসময় আপনার মাথায় রাখা উচিত যখন আপনি একটি স্যুট পড়তে বা কিনতে যাবেন।

১. স্যুটের ফিটিংটাই আসছে সর্বপ্রথম। এ বিষয়ে আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবেই। কারণ, স্যুট পড়ায় এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

২. এরপর যা আপনি সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে খেয়াল করবেন তা হচ্ছে স্যুটটাতে আপনার কাঁধের অংশ ফিট হয়েছে কিনা!

৩. আপনি যেই টাই পড়ছেন তার দৈর্ঘ্য যেন কোনভাবেই আপনার কোমর অতিক্রম না করে। আপনার বেল্টের যে বাকল তার একটু উপরে থাকবে টাইয়ের শেষ মাথা।

৪. স্যুটে বুকের যে অংশ কলারের ভাঁজের সঙ্গে একই রেখায় ভাঁজ করা থাকে, তার প্রস্থের মিল রেখে আপনি টাইয়ের প্রস্থ নির্ধারণ করবেন।

৫. আপনার প্যান্ট বা ট্রাউজারের শেষ অংশ অর্থাৎ হেম যেন অতি অবশ্যই আপনার জুতোর উপরিভাগ পর্যন্তই আসে। অথাৎ জুতো ছুঁইছুঁই করবে আপনার প্যান্টের শেষ অংশ। এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য যেটা, আপনি অবশ্যই কোন ব্যাগি ট্রাউজার স্যুটের সাথে পড়বেন নাহ।

৬. আপনি স্যুটের নিচে যে শার্টটি পড়বেন তার রঙ’র সাথে আপনার টাইয়ের রঙ যেন সামঞ্জস্য বজায় রাখে।

৭. আপনার স্যুটের জন্য পকেট স্কয়ার সবসময়ই একটা আকর্ষণীয় বর্ণনা ধারন করবে, তাই এটা এমন করে ফেলবেন যা আপনার টাই থেকে হয় সম্পূর্ণ ভিন্ন

৮. আপনার স্যুটের যে ব্লেজার থাকবে তার দৈর্ঘ্য যেন অবশ্যই আপনার প্যান্টের ফ্রন্ট জিপারের শেষ অংশ পর্যন্ত ঢেকে ফেলে।

৯. আরেকটি মজার উপায়ে আপনি আপনার স্যুটটিকে আকর্ষণীয় করে তুলতে পারেন যেমন আপনার স্যুট যদি দুই বোতামের হয় তাহলে প্রথম বোতামটি অথবা স্যুট যদি তিনটি বোতামের হয় তাহলে মধ্য বোতামটি যেন নাভীর ঠিক ওপরেই থাকে।

১০. আপনি যদি টাই পড়েন তাহলে আপনার শার্টের কলার যেন স্যুট ল্যাপেলের ভেতরে চলে যায় আর যদি টাই না পড়েন তাহলে কলার ছোট হলেই ভাল।

১১. স্যুটের শেষ বোতাম সবসময় খোলা রাখতে হবে। এটা ওভার কোর্টের জন্যেও প্রযোজ্য।

১২. স্যুটের আস্তিন কিনবা হাতা যেন শার্টের আস্তিন কিংবা হাতা থেকে হাফ ইঞ্চি উপরে থাকে।

১৩. যখন আপনি বসবেন আপনি অবশ্যই আপনার স্যুটের বোতাম খুলে নেবেন।

১৪. আপনার নৈমিত্তিক যে স্যুট অথাৎ ক্যাজুয়াল স্যুট অবশ্যই এক বোতামের হলে চমৎকার হয়।

১৫. আপনার স্যুটকে আরো ফরমাল লুক দেবার জন্যে আপনি ডাবল ব্রেস্টেড স্যুট ব্যবহার করতে পারেন।

১৬. ইদানিং স্যুটের দুটি লম্বা স্লিটস আপনাকে আরো আধুনিক করে তুলবে।

১৭. আপনার বেল্টের রঙ’র সাথে মিল থাকবে আপনার জুতোর রঙ।

১৮. আপনি যদি চেক করতে চান আপনার স্যুটটি ফিট হয়েছে কিনা তাহলে আপনি আপনার একহাত, আপনার বুক এবং প্রথম বোতামের মধ্যে দিয়ে প্রবেশ করান, তাতে যদি মনে হয় গ্যাপটা একটু বেশী তাহলে বুঝে নেবেন স্যুটটা ফিট হয়নি আপনার শরীরে।

১৯. আপনি যদি টাইয়ে ক্লিপ লাগাতে চান তাহলে সেটা টাইয়ে আপনার বুক বরাবর লাগাবেন, যা টাইয়ের খুব উপরেও হবে নাহ, খুব নিচেও হবে নাহ। টাইয়ের মধ্যভাগের একটু উপরে লাগাবেন বুক বরাবর।

২০. ফরমাল স্যুটের সাথে আপনি কখনই স্পোর্টস ঘড়ি পড়বেন না।

২১. আপনি কখনই সাস্পেন্ডারস বেল্ট ব্যবহার করবেন না।

২২. স্যুটের ভাঁজ যেন নষ্ট না হয় তাই নিচে দেয়া ছবির মত করেই আপনি স্যুট রাখবেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জামি

উপরে