আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২১:১৮

বসন্ত দিনে বাসন্তীর ‘ফুলসাজ’

উম্মে জান্নাত
বসন্ত দিনে বাসন্তীর ‘ফুলসাজ’

ফাল্গুন মানেই ফুলে ফুলে প্রকৃতি ছেয়ে যাওয়া। সেই সঙ্গে নারীদের বাসন্তী শাড়ির সঙ্গে ফুলের সাজ। বাসন্তী তাঁতের শাড়ী পরে খোপা কিংবা এলো চুলে কয়েকটি ফুল না হলে কি চলে?

ফাগুনের পুরো সাজটাই যেন মাটি হয়ে যায় ফুল ছাড়া। প্রকৃতি যেমন ফুলে ফুলে বসন্তকে বরণ করে নেয়, তেমনি বাঙালী ললনারাও ফুলসাজে হয় প্রকৃতিতেই বিলীন!

১লা ফাল্গুনে ফুলে ফুলে সবার খোপা দুলে উঠবে এটাই স্বাভাবিক।

ফুলের রিং - আগে নারীরা ফাল্গুনে যেমন খোপার এক পাশে একটি বা দুটি ফুল গুঁজে দিতো এখন সেই স্টাইল অনেকটাই চলে গিয়েছে। ফুলের গহনা ও ফুল লাগানোর ধরণে এসেছে অনেক পরিবর্তন। খুব ছিম ছাম গহনা পরে মাথায় একটি বড় ফুলের রিং পরার প্রচলনটাই বেশি এখন। গত কয়েক বছর ধরেই এই প্রচলনটা বেশি দেখা যাচ্ছে। তরুণীরা শাড়ি, সালোয়ার কামিজ কিংবা ফতুয়ার সঙ্গে মাথায় এই ফুলের রিং গুলো পরতে বেশ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছে। সব ধরণের সাজের সঙ্গেই মানিয়ে যায় এই ফুলের রিং গুলো। একটি বোহেমিয়ান ধাঁচের এই ফুলের রিং গুলো সাজে আনে ভিন্নতা ও আভিজাত্য।

খোলা চুলে ফুল - চুলে ফুল পরতে হলেই চুল বাধতে হবে এমন ধারণায় এসেছে পরিবর্তন। এখন তরুণীরা খোলা চুলেই পরছে নানান রকমের ফুল তবে গোলাপ ফুল পরার প্রচলন একেবারেই কমে গিয়েছে। ফ্যাশন সচেতন নারীরা এখন জারবেরা কিংবা অর্কিড লাগাতেই বেশি পছন্দ করে।

বেনীতে ফুল - ইদানিং বেনির মাঝে মাঝে একটি একটি করে ছোট ফুল গুঁজে দেয়ার চল এসেছে। এই ফাল্গুনে আপনিও বেনির মাঝে ছোট ছোট ফুল গুঁজে নিতে পারেন।

কৃত্রিম ফুল - তাজা ফুলের পাশাপাশি কৃত্রিম ফুলও চলচে সমান তালে। গতবারের মত এইবারের ফাল্গুনেও নারীদেরকে চুলে কৃত্রিম ফুল কিংবা ফুলের ক্লিপ পরতে দেখা যাবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/মাঝি

উপরে