আপডেট : ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৭:৪৫

স্মার্ট ওয়াচ: ২০১৬’য় ফোটাবে ব্যক্তিত্ব

আরিফুর রহমান
স্মার্ট ওয়াচ: ২০১৬’য় ফোটাবে ব্যক্তিত্ব

একটা সময়ে আপনি মোবাইল নামক যন্ত্রটির নামের সাথেই পরিচিত ছিলেন না। আর এখন মোবাইল ছাড়া আপনার একটি মুহুর্তও চলে না। এভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে পৃথিবী। আর তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি আমরা।

আগে বলা হত, ঘড়ি, ছাতা আর পার্স ছাড়া পথে-ঘাটে না বেরুতে। এখন তার জায়গা নিয়েছে মোবাইল এবং এটিএম কার্ড।

আসছে নতুন বছরে পাল্টে ডাবে পুরানো অভ্যাস। রিস্টওয়াচ বদলে নতুন বছলে হাতে হাতে দেখা যাবে স্মার্টওয়াচ। এই ঘড়ি ব্লু-টুথের মাধ্যমে কানেক্টেড থাকবে আপনার স্মার্টফোনের সঙ্গে।

কল করা এবং ফোন রিসিভ করা দুইই করতে পারবেন স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে। দেখতে পারবেন মেল এবং নেট সার্ফিং করতে পারবেন অনায়াসেই।

চলুন তবে দেখে নেই বাজারের সেরা পাঁচটি স্মার্টফোনের হাল-চাল।

অ্যাপল ওয়াচ

চাইলে গাড়ি থেকে হোটেল রুম বা ঘরের দরজা পর্যন্ত আপনি লক করতে পারবেন অ্যাপল ওয়াচের মাধ্যমে। সাধারণ বৈশিষ্ট্যের মধ্যে ফোন রিসিভ করা, হেলথ ট্র্যাকিং সঙ্গে অ্যাপল পে ফিচারও যুক্ত করা হয়েছে এ ঘড়িতে। এ ছাড়া ফেসবুক, ইন্সটাগ্রামসহ জনপ্রিয় প্রায় সব অ্যাপই ব্যবহার করা যাবে মোবাইল বের না করেই।

অ্যাপলের প্রথম পরিধানযোগ্য পণ্য হিসেবে বাজারে আসা অ্যাপল ওয়াচের ডিসপ্লের থাকছে দুটি আকার। এর মধ্যে রয়েছে ১.৭ ও ১.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে অ্যাপল ওয়াচ।

কেসিং, বেল্ট অ্যালুমিনিয়াম, স্টিল এবং স্বর্ণের তৈরি প্রায় ৩৮টি মডেলের অ্যাপল ওয়াচ বাজারে পাওয়া যায়।

পূর্ণাঙ্গ চার্জ হতে এ ঘড়িতে সময় লাগবে প্রায় ২ ঘণ্টা ৫০ মিনিট। একবার চার্জে একটানা ১৮ ঘণ্টা চলবে এ ঘড়ি। তবে চার্জ বেশি খরচ হয় এমন সেবা বন্ধ থাকলে চলবে ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত। ব্যবহারের ক্ষেত্রে প্রায় হাজারেরও বেশি অ্যাপস যুক্ত করা হয়েছে এ ওয়াচে।

সনির স্মার্টওয়াচ ৩

সনির ‘স্মার্টওয়াচ ৩’-এর সঙ্গে এখন ব্যবহার করা যাবে স্টেইনলেস স্টিলের বেল্ট। আগের মতোই ৩২০ বাই ৩২০ পিক্সেলের চারকোনা ডিসপ্লে থাকছে ‘স্মার্টওয়াচ ৩’-এ। ডিভাইসটি পানি নিরোধক, গুগলের অ্যান্ড্রয়েড ওয়্যার প্লাটফর্মে চলবে এটি।

বাজারের স্মার্টওয়াচগুলোর মধ্যে একমাত্র সনির ‘স্মার্টওয়াচ ৩’ হচ্ছে একমাত্র অ্যান্ড্রয়েড ওয়্যারএবল ডিভাইস যাতে বিল্ট-ইন জিপিএসের সুবিধা আছে। সরাসরি এই জিপিএস ফিচার ব্যবহার করবে নতুন গলফশট ও আইফিট অ্যাপ দুটি।

মোটোরোলা মোটো ৩৬০ সেকেন্ড জেনারেশন

কিছুদিন আগেই লঞ্চ হয়েছে এই নতুন মডেলটি। মোটো রেঞ্জের প্রথম স্মার্টওয়াচটি এসেছিল এক বছর আগে।এই ডিসেম্বরেই এল তার দ্বিতীয় ভার্সনটি। এতে আছে ১.৩৭ ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে, স্ক্র্যাচ রেসিস্ট্যান্ট, ডিসপ্লে রেসিলিউশন ৩৬০x৩২৫ পিক্সেলস, ব্লুটুথ ভার্সন ৪.০।

 

এলজি ওয়াচ আরবেন

এলজি স্মার্টওয়াচ- রাউন্ড ডায়াল, ওয়াটার রেসিস্ট্যান্ট, স্ক্র্যাচ রেসিস্ট্যান্ট লেদার স্ট্র্যাপ। এই ওয়াচে রয়েছ ১.৩ ইঞ্চি পি-ওলেড ডিসপ্লে। ডিসপ্লে রেসিলিউশন ৩২০x৩২০ পিক্সেল। এই ওয়াচও ওয়াটার এবং স্ক্র্যাচ রেসিস্ট্যান্ট। দামের রকমফের রয়েছে। এর মূল্য অ্যাপল ওয়াচের সস্তা ভার্সনটির সমান। তবে এলজি স্মার্টওয়াচটিতে স্টেইনলেস স্টিলের বডি ও চামড়ার বেল্ট থাকায় তা অ্যাপল ওয়াচের ৯৪৯ ডলার মূল্যের ভার্সনের সমকক্ষ।
 

পেবল স্টিল স্মার্টওয়াচ

`পেবল' নামের এ স্মার্টওয়াচ অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস দুই অপারেটিং সিস্টেমই সমর্থন করবে। পেবল স্মার্ট ওয়াচটি হবে হালকা-পাতলা কারণ এতে ছোট আকারের একটি ই-পেপার টাচস্ক্রিন যুক্ত হবে। ব্লুটুথের মাধ্যমে এ ঘড়িটি থেকে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস-চালিত স্মার্টফোন নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।
 

অনেকটা জেমস বন্ড সিনেমায় দেখানো ঘড়ির মতোই কাজ করতে সক্ষম হবে পেবল। ব্লুটুথ ব্যবহারের মাধ্যমে এ ঘড়িটিতে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন কাস্টমাইজ করা যাবে।

ঘড়িটিতে রয়েছে বল্টি ইন এক্সেলোমিটার, ভাইব্রেটিং মোটর, এআরএমের তৈরি শক্তিশালী মাইক্রোপ্রসেসর। এর ব্যাটারির আয়ু হবে সাত দিন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এআর/একে

উপরে