আপডেট : ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ১৫:৪০

এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের জন্য আরেকটি সুখবর!

অনলাইন ডেস্ক
এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের জন্য আরেকটি সুখবর!

বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের দেয়া ৫ শতাংশ বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট জুলাই থেকে কার্যকর হবে। বৈশাখ থেকে কার্যকর হবে বৈশাখী ভাতা। অর্থ মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছে। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) মহাপরিচালক (রুটিন দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. শামসুল হুদা বলেন, জুলাই থেকে কার্যকর হওয়ায় শিক্ষকরা ৫ শতাংশ হারে ইনক্রিমেন্ট বকেয়া পাবেন। এটা ডিসেম্বরের মাঝামাঝি হয়ে যেতে পারে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পর অর্থ মন্ত্রণালয় এ খাতে অর্থ দেয়ার ব্যাপারে সম্মতিপত্র পাঠিয়েছে। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে এবং সামনে নির্বাচন থাকায় শিক্ষকদের সন্তুষ্ট করতে দ্রুততার সঙ্গে অর্থও ছাড় দেয়া হতে পারে। জানুয়ারিতে ডিসেম্বরের যে এমপিও দেয়া হবে, সেটার সঙ্গেও চলে যেতে পারে। আমরা চেষ্টা করছি। অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে টাকা এলেই শিক্ষকদের পরিশোধ করা হবে।

গত ৮ নভেম্বর রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষকদের চার ধরনের আর্থিক সুবিধা দেয়ার লক্ষ্যে বিশেষ বরাদ্দের ঘোষণা দেন। এগুলো হচ্ছে- সরকারি চাকরিজীবীদের মতোই বছরে ৫ শতাংশ হারে বেতন বাড়বে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের। পাবেন মূল বেতনের ২০ শতাংশ হারে বৈশাখী ভাতা। এর মধ্যে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বার্ষিক ৫ শতাংশ হারে ইনক্রিমেন্ট প্রদানের জন্য প্রায় ৫৩১ কোটি ৮২ লাখ ৩৯ হাজার টাকা এবং বৈশাখী ভাতার জন্য ১৭৭ কোটি ২৭ লাখ ৪৯ হাজার টাকা বিশেষ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া অবসরে যাওয়া শিক্ষকদের জন্য অবসর সুবিধা বোর্ডের অনুকূলে ৫৩২ কোটি টাকা এবং কল্যাণ ট্রাস্টের তহবিলে ২২৭ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্দ প্রদান করা হয়। পাশাপাশি উভয় বোর্ডের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে সিড মানি হিসেবে দিয়েছেন ১০ কোটি করে ২০ কোটি টাকা দেয়া হয়েছে। ওই ঘোষণার পর বুধবার অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে। তাতে উল্লেখ করা হয়, ৫০ শতাংশ বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট এবং ২০ শতাংশ বৈশাখী ভাতা বাবদ সুবিধা ২০১৮ সালের ১ জুলাই কার্যকর হবে।

উপরে