আপডেট : ২৫ এপ্রিল, ২০১৮ ১৮:২৬

গতবারের প্রশ্নপত্রে এইচএসসি পরীক্ষা!

অনলাইন ডেস্ক
গতবারের প্রশ্নপত্রে এইচএসসি পরীক্ষা!

চলমান উচ্চ মাধ্যমিকের (এইচএসসি) আজ বুধবারের হিসাববিজ্ঞান দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষায় গত বছরের (২০১৬) বহুনির্বাচনী প্রশ্নপত্রে প্রায় ২০ মিনিট পরীক্ষা নেয়া হয়েছে টাঙ্গাইলের একটি কেন্দ্রে। পরে প্রশ্নপত্র পরিবর্তন করে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। আজ বুধবার  সকালে টাঙ্গাইলের বাসাইল এমদাদ হামিদা ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সকাল ১০টায় পরীক্ষার্থীরা প্রশ্ন হাতে পেয়ে বহুনির্বাচনী উত্তরপত্রের ঘর পূরণ করছিলেন। প্রায় ২০ মিনিট পর এক শিক্ষার্থীর নজরে আসে প্রশ্নপত্রটি ২০১৬ সালের। বিষয়টি ওই শিক্ষার্থী দায়িত্বরত শিক্ষককে জানালে ভুল ধরা পড়ে। ভুল প্রশ্নপত্রের কথা জেনে শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুন নাহার স্বপ্না ওই কেন্দ্রে যান। পরে  নতুন প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা শুরু এবং সময়সীমা সাত মিনিট বাড়িয়ে দেয়া হয়।

এ কেন্দ্রে সকালে বাসাইল জোবেদা রুবেয়া মহিলা কলেজ, করটিয়া আবেদা খানম গার্লস হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ ও শহীদ রওশন আলী কলেজের ৮৪ জন শিক্ষার্থী দুটি কক্ষে হিসাববিজ্ঞান দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষায় অংশ নেন। এর মধ্যে প্রায় ২০ জন শিক্ষার্থীর হাতে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট তুলে দেয়া হয়। 

২০ নম্বর কক্ষের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক পরীক্ষার্থী জানান, তাদের কক্ষে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট প্রশ্নে প্রায় ২০ মিনিট পরীক্ষা নেয়া হয়। কিন্তু পরে ৭ মিনিট পরীক্ষার সময় বাড়ানো হয়। একই কেন্দ্রের ১৪ নম্বর কক্ষের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক পরীক্ষার্থী জানান, প্রায় ১৫ মিনিট পর প্রশ্ন পরিবর্তন করা হয়। কিন্তু সময় বাড়ানো হয় সাত মিনিট। 

বাসাইল এমদাদ হামিদা ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও প্রিন্সিপাল ড. হাবিবুর রহমান বলেন, ভুলক্রমে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট প্রশ্ন দেয়া হয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেটি পরিবর্তন করা হয়। 

এ ব্যাপারে বাসাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুন নাহার স্বপ্না বলেন, বিষয়টি জানার পর তাৎক্ষণিক কেন্দ্রে গিয়ে প্রশ্ন পরিবর্তন করা হয়। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে সাত মিনিট সময় বাড়িয়ে দেয়া হয়।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে