আপডেট : ১ মার্চ, ২০১৬ ২২:৫৩

লিংকন কলেজের শিক্ষার্থীদের শিক্ষাসফর ও বৃত্তিপ্রদান

বিডিটাইমস ডেস্ক
লিংকন কলেজের শিক্ষার্থীদের শিক্ষাসফর ও বৃত্তিপ্রদান

শীতের আবহ কাটিয়ে এসেছে বসন্ত। সকালের মৃদু হাওয়ায় এগিয়ে চলছে শিক্ষার্থীদের বহণকারী বাস।গন্তব্য গাজীপুরের কালিয়াকৈর থানাধীন চন্দ্রা এলাকার সোহাগ পল্লী।শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আছেন শিক্ষকগণও।শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরাও বাদ যাননি। সবাই তখন আনন্দে মাতোয়ারা। আনন্দ উল্লাসের পাশাপাশি চলছে গানও। এমনই ছিলো লিংকন কলেজের শিক্ষার্থীদের এবারের শিক্ষাসফর।

গাজীপুরের লিংকন কলেজের বার্ষিক শিক্ষাসফর, নবীণবরণ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয় ১ মার্চ মঙ্গলবার। এছাড়াও বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সনদ ও অর্থবৃত্তি প্রদান করা হয়। সারাদিনের জন্য শিক্ষক শিক্ষার্থীদের উৎসবে পরিণত হয়েছিলো সোহাগ পল্লী। সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন মালয়েশিয়ার লিংকন ইউনিভার্সিটি কলেজের উপাচার্য এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রফেসর ড. অমিয়া ভৌমিক। লিংকন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যানও তিনি। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আনন্দঘন পরিবেশে সময় কাটিয়ে বেশ উচ্ছসিত ছিলেন অমিয়া ভৌমিক।কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে অর্থবৃত্তির পাঁচ হাজার করে টাকা এবং সনদ তুলে দেন তিনি। ভবিষ্যতে লিংকন কলেজের যেসব শিক্ষার্থী এসএসসি এবং এইচএসসিতে ভালো ফলাফল (গোল্ডেন এ প্লাস) করবে তাদেরকে মালয়েশিয়ার লিংকন ইউনিভার্সিটিতে বিনামূল্যে পড়া এবং মালয়েশিয়ায় চাকুরির ব্যবস্থা করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন ড. অমিয়া। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের লিংকন কলেজ থেকে পাস করা প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে ভবিষ্যতে চাকুরির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। বাংলাদেশে শিক্ষাবিস্তারে তিনি বিভিন্ন জেলায় লিংকনের শাখা খোলার প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন। বৃত্তিপ্রদান অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন লিংকন ইউনিভার্সিটি কলেজের এশিয়া বিষয়ক পরিচালক ও লিংকন কলেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, আব্রাহাম লিংকন ট্রাষ্টের চেয়ারম্যান এস এম জহিরুল ইসলাম সবুজ, লিংকন কলেজের অধ্যক্ষ আজিজুল হক শিকদার, লিংকন ইউনিভার্সিটি কলেজের কান্ট্রি ম্যানেজার হায়দার আলী, প্রশাসনিক কর্মকর্তা নিশাত মির্জা, লিংকন কলেজের স্কুল শাখার সভাপতি আব্দুর রশিদ ঢালীসহ কলেজের সকল শিক্ষকবৃন্দ।বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলো মাহফুজা আক্তার, স্বাগতা ইসলাম মৃত্তিকা ও মেহরীন জামান লামিয়া।

বৃত্তিপ্রদান অনুষ্ঠানে জহিরুল ইসলাম সবুজ বলেন, ‘পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের বিনোদনেরও প্রয়োজন আছে।আজকের এই অনুষ্ঠান শিক্ষার্থীদের অনুপ্রেরণা যোগাবে।লিংকন কলেজ সব সময় শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা দিয়ে আসছে। ভবিষ্যতেও গরীব-মেধাবী শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষায় আমাদের এই ধারা অব্যাহত থাকবে।’

শিল্পীদের সাথে অমিয়া ভৌমিক

দুপুরের খাওয়া শেষে শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি গান পরিবেশন করেন ক্লোজআপ রানার আপ অপু, শাইকা আলম বিপাশা এবং হাসিন। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন বাংলা বিভাগের প্রভাষক ফাহমিদা রহমান তৃষা এবং ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক এস এম আকবর হোসেন।

এমন একটি সুন্দর আয়োজনের জন্য লিংকন কলেজকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান শিক্ষাসফরে আসা শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা।

উপরে